আবারও স্থগিত হতে পারে এশিয়া কাপ

অনলাইন ডেস্কঃ

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চার টেস্টের সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে আছে ভারত। এই অবস্থায় টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলার জোরালো সম্ভাবনা আছে বিরাট কোহলিদের। এখন শেষ টেস্ট ড্র কিংবা জিতলেই হলো। তাহলে জুনে অনুষ্ঠেয় ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের প্রতিপক্ষ হবে তারা। তেমনটি হলে এশিয়া কাপ পেছাতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) চেয়ারম্যান এহসান মানি।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে হওয়ার কথা থাকলেও করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত জুলাইয়ে এক ঘোষণায় স্থগিত করা হয় এশিয়া কাপের ১৫তম আসর। এ বছর জুনেই তা হওয়ার কথা। কিন্তু পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি এহসান মানি রোববার আভাস দিলেন, ভারত বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল নিশ্চিত করলে আবারও স্থগিত হতে পারে এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই।

গতবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে ছাড়া এশিয়া কাপ হবে না বলে একপ্রকার নিশ্চিত পাকিস্তান ক্রিকেটের প্রধান। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারত চতুর্থ ও শেষ টেস্টে হার এড়ালেই নিশ্চিত করবে প্রথমবার আয়োজিত বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। আর ইংলিশরা জিতলে লর্ডসের শিরোপা নির্ধারণী মঞ্চে আগে থেকে অপেক্ষায় থাকা নিউ জিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া। জুনেই হবে এই ফাইনাল।

একই সময়ে হওয়ার কথা এশিয়া কাপ। সূচিটা তাই সাংঘর্ষিক। এই বিষয়টা রোববার সামনে নিয়ে এলেন মানি। করাচিতে এক সংবাদ সম্মেলনে পিসিবি প্রধান বলেছেন, ‘গত বছর হওয়ার কথা ছিল এশিয়া কাপ। কিন্তু স্থগিত করে তা এ বছর আনা হয়। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে এ বছর এশিয়া কাপ হতে যাচ্ছে না, কারণ জুনেই হবে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। শ্রীলঙ্কা বলেছিল, তারা জুনে এই টুর্নামেন্ট আয়োজনের চেষ্টা করবে।’

যুক্তি দেখিয়ে মানি যোগ করেছেন, ‘তারিখগুলো সাংঘর্ষিক। আমাদের মনে হচ্ছে টুর্নামেন্ট হতে যাচ্ছে না। হয়তো এটি ২০২৩ সালে পিছিয়ে দিতে হবে আমাদের।’ একই সুরে সুর মেলালেন পিসিবি প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান, ‘দেখে মনে হচ্ছে ভারত ফাইনালে পৌঁছে গেছে এবং তারা নিউ জিল্যান্ডের সঙ্গে লড়বে। এ কারণে শ্রীলঙ্কায় আসন্ন এশিয়া কাপ হবে না। আমরা নিশ্চিতকরণের জন্য অপেক্ষা করছি। কিন্তু যদি না-ই হয়, তাহলে ভবিষ্যতের জন্য পরিকল্পনা করতে হবে।

সময় নিউজ২৪.কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *