ইসলামপুরে ধর্ষণকারী কবিরাজ গ্রেফতার

লিয়াকত হোসাইন লায়ন,জামালপুর প্রতিনিধিঃ

 

জামালপুরের ইসলামপুরে কবিরাজের চিকিৎসা নামে নানা প্রলোভন দেখিয়ে স্বামী পরিত্যক্তা ধর্ষণ হওয়ার তিনদিনে মাথায় ধর্ষণকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধর্ষনকারী বাহার কবিরাজ উপজেলার পাথর্শী ইউনিয়নের মুকশিমলা গামারিয়া গ্রামের মৃত হাছেন আলীর পুত্র।
পুলিশ সুত্রে জানাযায়, ইসলামপুর সার্কেলের এএসপি সুমন মিয়ার নির্দেশে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই মাহমুদুলের নেতৃত্বে পুলিশ মেলান্দহ উপজেলার টগারচর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মামলা সুত্রে জানাযায়, উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের ধনতলা গ্রামে রৌশনারা বেগম স্বামী পরিত্যাক্ত হওয়ার পর থেকেই দীর্ঘদিন থেকে পিত্রালয়ে বসবাস করে আসছিল। হঠাৎ অসুস্থ হলে বিভিন্ন লোকের মাধ্যমে জেনে করিরাজের সরনাপন্ন হন। ্এ সময় কবিরাজ ওই নারীকে চিকিৎসা দিতে প্রতি নিয়তই যাতায়াত করে। একদিন চিকিৎসার কথা বলে কবিরাজের বাড়িতে ডেকে নেয়। এক পর্যায়ে কবিরাজ তাকে বিবাহের প্রস্তাব দেন।

ওইদিন বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এতে রৌশনারা বেগম অন্তসত্বা হয়ে পরে। অন্তসত্বা ওই নারী বিয়ের জন্য কবিরাজকে চাপ দিলে সে তালবাহনা শুরু করে। পরে সু কৌশলে কবিরাজ পৌর শহরের গাওকুড়া তার ছোট ভাইয়ের বাড়িতে ডেকে নিয়ে ঔষধ খাওয়া। এতে তার গর্ভপাত হয় পরে। এ ঘটনায় ইসলামপুর থানায় ওই নারী বাদী হয়ে বাহার কবিরাজসহ চারজনকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

ইসলামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান- ধর্ষণকারী কবিরাজকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আসামী বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।
এছাড়াও আরেক ধর্ষণ মামলার আসামী পাথর্শী ইউনিয়নের পূর্ব গামারিয়া গ্রামের ধর্ষণকারী মুসলিম উদ্দিনের পুত্র মোস্তফাকে শনিবার রাতে নারায়নগঞ্জ থেকে আটক করেছে ইসলামপুর থানা পুলিশ। জানাগেছে, ধর্ষিতা ওইনারী ইতিমধ্য সন্তান প্রসব করেছেন।

 

সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *