এক কিশোরী দরজা বন্ধ করে সিলিং ফ্যানের সাথে আত্মহত্যার চেষ্টা রক্ষা করলেন ওসি

চাঁদপুর প্রতিনিধি :
এক কিশোরী দরজা বন্ধ করে সিলিং ফ্যানের সাথে আত্মহত্যার চেষ্টা রক্ষা করলেন ওসি বৃহস্পতিবার রাত ১ টায় ঘটনাটি ঘটেছে চাঁদপুর পৌরসভার ১৫নং ওয়ার্ডের বিষ্ণুদী রোডস্থ ব্যাংক কলোনীতে।

স্থানীয়রা জানান, ব্যাংক কলোনীতে শামসুল আলম পাটোয়ারীর ৫ম তালায় এক ভাড়াটিয়ার মা-মেয়ে ঝগড়া করে। মেয়েটি চাঁদপুর শহরের একটি স্কুলে ৭ম শ্রেণীতে পড়ে। ওই দিন সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ঝগড়া চলছিল। এক পর্যায়ে কিশোরী মেয়েটি দরজা বন্ধ করে সিলিং ফ্যানের সাথে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। কে বা কারা থানায় খবর দিলে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছে।

মেয়েটির মা ঝর্ণা বেগম বলেন, রেহানা নিয়মিত স্কুলে যায় না, সারাদিন মোবাইল ফোনে ব্যস্ত থাকে। যার কারণে আমি বকা দিলে সে আমার সাথে অভিমান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পুলিশ ঘটনাস্থলে না আসলে হয়তো আমি আর আমার মেয়েকে ফিরে পেতাম না।

চাঁদপুর সদর উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক বলেন, ওসি সাহেব ঘটনাস্থলে এসে দরজা বন্ধ দেখেন। দ্রুত দরজা ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে কিশোরীকে উদ্ধার করেন। ঘটনার পরই এক মুহূর্ত নষ্ট না করে ওই কিশোরীকে চাঁদপুর ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে দ্রুত চিকিৎসা দেয়া হয়।

হাসপাতালের কর্মরত চিকিৎসক বলেন, মেয়েটিকে দ্রুত চিকিৎসা দেয়ায় প্রাণে বেঁচে গেল। হয়তো আরেকটু বিলম্ব হলে তাকে বাঁচানো সম্ভব হতো না। তাকে শ্বাসকষ্টসহ যাবতীয় চিকিৎসা দেয়া হয়।

চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নাসিম উদ্দিন বলেন, আমি খবর পেয়ে নিজেই ঘটনাস্থলে পৌঁছি। পরে ওই ঘরের দরজা ভেঙ্গে কিশোরীকে উদ্ধার করি। মেয়েটি এখন সুস্থ আছে। আত্মীয়স্বজন ও মেয়েটির মায়ের জিম্মায় তাকে দিয়ে এসেছি।

সময়নিউজ২৪.কম/ বি এম এম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *