এ-কেমন শত্রুতা, নওগাঁয় ৮ হাজার আম গাছ কেটে নষ্ট করেছে দুবৃত্তরা

 
Get a Free Domain Name with every hosting package.

শহিদুল ইসলাম (জি এম মিঠন) নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ
নওগাঁয় গাছের সাথে শত্রুতা করে ১২জন আমচাষীর প্রায় ৬০ বিঘা জমির উপর রোপিত অনুমান ৮ হাজার আম গাছ কেটে ফেলে নষ্ট করেছে দুবৃত্তের দল। এঘটনায় প্রায় কোটি টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্থ্যরা আম বাগান মালিকরা।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তের দল নওগাঁর সাপাহার উপজেলার জামালপুর গ্রামের পশ্চিম-দক্ষিন পার্শ্বে বিশাল মাঠে রোপিত একাধিক ব্যক্তির ৬০ বিঘা জমির উপর রোপিত প্রায় ৮হাজার আমগাছ কেটে ফেলে নষ্ট ক্ষতি সাধন করেছে। বুধবার সকালে বাগানের মালিকগণ বাগান এলাকায় গিয়ে গাছকাটার দৃশ্য দেখে দিশেহারা হয়ে পড়েন।

এরপর সংবাদ জানাজানি হলে এলাকার শত শত উৎসুক জনতা এক নজর দেখার জন্য ওই বাগান এলাকায় ভিড় জমায়। কে বা কারা এসব গাছ কেটে ফেলেছে এবিষয়ে বাগান মালিকদের সাথে কথা হলে তারা জানান সামনের সিজনে প্রায় সব গাছগুলোতে আম আসত। আমের সিজনের পূর্ব মহুর্তে কে বা কারা এবং কেন তাদের বাগানের গাছগুলি কেটে ফেলেছে তার কোন কারণ আমাদের জানা নেই। তবে কোন বাগান মালিকের সাথে কারো শত্রুতা থাকতে পারে, দুর্বৃত্তরা চতুর হওয়ায় তাদের যেন কেউ সনাক্ত করতে না পারে তাই হয়ত তারা শত্রু পক্ষের ক্ষতি করতে গিয়ে নিজেদের বাঁচানোর তাগিতে কৌশল হিসেবে অন্যেরও গাছ কেটে ফেলেছে এমনটাই মনে করছেন বাগান মালিকরা।

উপজেলার আমচাষীরা ধারণা করছেন কেটেফেলা আমগাছগুলি হতে আগামী আমের মৌসুমে প্রায় ১কোটি টাকার আম কেনা-বেচা হত।হঠাৎ করে বিরাট ধরণের ক্ষতি সাধন হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ বাগান মালিকগণ চিন্তিত সহ দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

ঘটনার খবর পেয়ে সাপাহার উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহজাহান হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) কল্যান চৌধুরী ও থানার ওসি আব্দুল হাই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

রাতের আঁধারে বাগান হতে অসংখ্য আমগাছ কর্তন করায় উপজেলার আমচাষীরা শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। উপজেলার হাজার হাজার আমচাষীরা গাছের সাথে শত্রুতাকারীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্ত মুলক শস্তির দাবী জানিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি ও কামনা করেছেন।

Get a Free Domain Name with every hosting package.

সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *