কমলগঞ্জে রাস্তা নির্মাণ নিয়ে দু পক্ষের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ ॥ এলাকাবাসীর মিশ্র প্রতিক্রিয়া

শাহীন আহমেদ, কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) :

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের বাল্লারপুর গ্রামে একটি রাস্তা নির্মাণ করাকে কেন্দ্র করে দু পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে। উভয় পক্ষে গোপনে প্রকাশ্যে সরকারদলীয় বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সমর্থন থাকায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের সম্ভাবনা রয়েছে। এক পক্ষ বলছে জনস্বার্থে রাস্তাটি নির্মাণ করা হয়েছে ।অপর পক্ষ বলছে জায়গার মালিককে না জানিয়ে রাতের আধারে জায়গা দখলের উদ্দ্যেশে রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় এক পক্ষ কমলগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করছে। গ্রামবাসীর ব্যানারে এক পক্ষ সংবাদ সম্মেলন অপর পক্ষ মানববন্ধন করেছে। রাস্তা নির্মাণ করাকে কেন্দ্র করে গ্রামবাসীর মধ্যে প্রকাশ্যে গোপনে বিভক্তি লক্ষ করা গেছে।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বাল্লারপার গ্রামের মো. ফয়সল আহমদ ও আব্দুল মোছাব্বির জানান, বাল্লারপার ও আশপাশের ১০/১২টি গ্রামের শত শত স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ এলাকার লোকজন গ্রামের বিভিন্ন বাড়ির ভিতর ব্যবহার করে কমলগঞ্জ পৌরসভা, ভানুগাছ বাজারসহ মাধবপুর সড়কে উঠে শ্রীমঙ্গলের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করেন।

পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির অফিস সংলগ্ন রাস্তার পূর্বাংশের সাথে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান সড়কের সংযোগ স্থাপনের জন্য এলাকাবাসীর দাবি দীর্ঘদিনের । স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় ভূমির মালিকদের সাথে আলোচনাক্রমে রাস্তা নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়। কয়েকমাস পূর্বে এই রাস্তার পূর্বাংশের আনুমানিক ৫০ ফুট জায়গার মালিক কবির মিয়া গংদের সাথে আলোচনা করে জমির বাজার মূল্য অথবা পার্শ্ববর্তী জায়গায় দ্বিগুণ ভূমি প্রদান করা হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়।

বৃষ্টি বাদলের মৌসুম শুরু হওয়ায় গত ২ মে সকাল ১০টায় গ্রামবাসী স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে রাস্তাটি নির্মাণ করেন। ভূমি মালিকদের সম্মতিতে প্রকাশ্য দিবালোকে রাস্তা তৈরী হলেও একটি কুচক্রী মহল বিষয়টিকে রাতের আঁধারে বিধবা মহিলার জমি দখল করা হয়েছে বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে। যা পুরোপুরি মিথ্যা ও বানোয়াট। সংবাদ সম্মেলনে কমলগঞ্জ সদর ইউপি চেয়ারম্যান কমলগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সম্পাদক মো, আব্দুল হান্নান, ইউপি সদস্য মাহমুদ আলী, লংঘুছড়া পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির সভাপতি রাশিদ মিয়া, বাল্লারপার যুব সংঘের সাধারণ সম্পাদক কয়ছর মিয়া, সমাজসেবক আবু তালেব, পাখি মিয়া, হাবিবুর রহমানসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনে দাবী করা হয় রাস্তাটি জনস্বার্থে নির্মাণ করা হয়েছে।

এদিকে বিধবা মহিলার জমি জোর পূর্বক দখল করে বাড়ির যাতায়াতের রাস্তা নির্মাণের প্রতিবাদে মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসীর একাংশ। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১ টায় মানববন্ধনে অংশগ্রহনকারীরা দাবী করেন গত ২ মে রাতের আঁধারে বাল্লার পার গ্রামের মৃত জামায়াত নেতা মক্কী মিয়ার ছেলে ফয়সল আহমদসহ ৪০/৫০ জনের একটি দল জোর পূর্বক বিধবার জমির উপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করে। পরের দিন মহিলা খবর পেয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিসহ প্রশাসনে অভিযোগ করেন। কিন্তু অদ্যাবদী কোনও সুরাহা না হওয়ায় এলাকাবাসীর উদ্যোগে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

ভোক্তভোগী বেনজির জাহান মেরি বলেন, ৪ সন্তান নিয়ে অসহায় অবস্থায় আছেন। এই জমি ছাড়া তার অন্য কোন জায়গা নেই। এমতাবস্থায় আবু তালেব, ফয়ছল, পাখি, মছব্বির, হাবিব, আলমসহ অন্যরা তার জমির একাংশে রাতের আঁধারে রাস্তা দেখিয়ে দখল করেছেন। বাস্তবে এখান দিয়ে রাস্তা নির্মাণের কোন প্রয়োজন নাই। অভিযুক্তদের চলাচলের সুবিধার জন্য রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। এই রাস্তা হলে গ্রামবাসীর কোন উপকার হবে না।

তিনি আরও বলেন, রাস্তা নির্মান নিয়ে তার সাথে কেউ কোন আলোচনা করেননি।নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, বিষয়টি নিয়ে কমলগঞ্জ পৌরসভায় সালিশ বৈঠক হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু মহিলা সময় নেয়ায় সালিশ হয়নি। এলাকাবাসী অনেকেই মনে করেন, দ্রুত সমস্যার সমাধান না হলে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হতে পারে।

সময়নিউজ২৪.কম/ বি এম এম 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *