কিশোরগঞ্জের সেই চার ধর্ষকের যাবজ্জীবন

রাজিবুল হক সিদ্দিকী, কিশোরগঞ্জ:

কিশোরগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক কিরণ শংকর হালদার করিমগঞ্জে চাঞ্চল্যকর শিশু অপহরণ ও গণধর্ষণ মামলায় চারজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন। গত মঙ্গলবার বিকেলে এ রায় প্রদান করেন। আসামীগণের প্রত্যেককে ২০০০ সনের নারী ও শিশু নির্যাতন আইন (সংশোধিত ২০১৩) এর ৯ (১) ধারায় দোষী সাব্যস্থ করে যাবজ্জীবন কারাদন্ড, এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়াও উক্ত আইনে ৭ ধারায় দোষী সাব্যস্থ করে ১০ বছরের কারাদন্ড ও নগদ ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদন্ড প্রদান করা হয়।


দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন- করিমগঞ্জ পৌরসভার আশুতিয়াপাড়া গ্রামের শহীদ মিয়ার ছেলে সুমন (২৪), কান্তু মিয়ার ছেলে ফারুক (২৬), কাশেমের ছেলে রুমন (২২) ও সোনা মিয়ার ছেলে হেলাল (২৮)।


গত ২০১৫ সালের ১১ মে করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য প্রকল্পে চিকিৎসাধীন মাকে দেখে বাবা ও চাচার সঙ্গে রিকশায় করে পাশ্ববর্তী তাড়াইল উপজেলার করাতি গ্রামের বাড়ি ফিরছিল ওই মেয়েটি (১১)।

পথে করিমগঞ্জ উপজেলার রামনগর শাহআলী মাজার এলাকায় পৌঁছলে রাত সাড়ে ১২টার দিকে আসামিরা তার আত্মীয়-স্বজনকে মারপিট করে অস্ত্রের মুখে মেয়েটিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। শেষরাতের দিকে পালাক্রমে ধর্ষণের পর মেয়েটিকে রক্তাক্ত ও অচেতন অবস্থায় একটি ব্রিজের পাশে ফেলে রাখা হয়। আহত অবস্থায় তাকে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সময় নিউজ২৪.কম/এএসআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *