কুমিল্লা জুড়ে বাহারি খেজুরের রাজত্ব

অাবু সুফিয়ান রাসেল।।
ইফতারে খেজুরের চাহিদা বাড়ছে। কুমিল্লার বাজারে দিনদিন বাড়ছে বাহারি খেজুরের রাজত্ব।

নগরীর বিভিন্ন বাজার ও দোকানে বিদেশি বিভিন্ন জাতের খেজুর, পরসা দেখা গেছে। দামে বেশী হলেও খেতে সুস্বাদু ও পুষ্ঠিকর তাই ক্রেতারা ভিড় করছে খেজুর দোকানে। এসব খেজুর ঢাকা, চট্টগ্রাম ও ফেনী থেকে পাইকারি দরে সংগ্রহ করের দোকানীরা। তবে অভিযোগ রয়েছে, অনেক খেজুর গোডাউনে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে সংরক্ষণ করা হয়। দাম নিয়েও রয়েছে নানা প্রশ্ন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সাধারণ খেজুর ৭০-১০০, ডাবস ২৫০, নাগাল ২০০, ফরিদা ৩০০, মরিয়ম ৭০০, বরুই ২০০-২২০, অাজুবা ৬০০-৬৫০, মদিনা ২০০-২৫০, নূর ৪৬০ থেকে ৫০০, মরিয়ম স্পেশাল ১২০০ টাকা প্রতি কেজি।

জাঙ্গালিয়া কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল ছানী ইমাম হাফেজ মাওলানা কাজী অাজহারুল ইসলাম বলেন, খেজুর খাওয়া সুন্নাত। রাসূল সা. খেজুর খুব পছন্দ করতেন।

রাজগঞ্জ বাজারের খেজুর ব্যবসায়ী মো. শরিফুল ইসলাম জানান, খেজুরের চাঁহিদা ব্যাপক। বিভিন্ন নামি-দামি খেজুর অাসে দেশের বাহির থেকে। মান অনুযায়ী দাম হয়ে থাকে। শ’টাকার খেজুর ও অাছে, হাজার টাকার খেজুর ও অাছে।

জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সহকারি পরিচালক ও তথ্য প্রদানকারী কর্মকতা মো. অাছাদুল ইসলাম বলেন, রমজান শুরুর অাগেই অামরা একাদিক খেজুর গোডাউন পরিদর্শন করেছি। নিন্মমানের খেজুর উচ্চদামে বিক্রি করলে বা অস্বাস্থ্যকর অবস্থায় খেজুর সংরক্ষণ ও বিক্রি করলে অাইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
সময়নিউজ২৪.কম/ এ এস আর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *