গত আসরের ধারাই ধরে রেখেছে বায়ার্ন মিউনিখ

অনলাইন ডেস্কঃ

বুন্দেসলিগায় সর্বশেষ দুই ম্যাচের ফলাফলে রক্ষণ নিয়ে দুশ্চিন্তা ছিল বায়ার্ন মিউনিখের। চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে অবশ্য তার প্রভাব পাওয়া গেলো না মোটেও। বরং ইউরোপীয় ক্লাব টুর্নামেন্টে নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখলো তারা। একই সঙ্গে প্রতিযোগিতায় অপরাজেয় থাকলো টানা ১৮তম ম্যাচ!

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গত আসরের ধারাই যেন এবার ধরে রেখেছে বায়ার্ন মিউনিখ। গত আসরে বার্সেলোনা থেকে শুরু করে প্রায় প্রতিটি দলকেই ধুমড়ে-মুচড়ে দিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিতেছিল বায়ার্ন। এবার দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম লেগে ইতালিয়ান ক্লাব ল্যাজিওকে ৪-১ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে থমাস মুলাররা।বায়ার্নের পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্ট লেওয়ানডস্কি হয়ে গেলেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা। বিশাল এই জয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে বলতে গেলে এক পা দিয়েই রাখলো বায়ার্ন।

ম্যাচের ৯ম মিনিটেই গোল করলেন রটার্ব লেওয়ানডস্কি। এই গোলটি দিয়েই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে ৭২তম গোল করলেন লেওয়ানডস্কি। তার সামনে রয়েছেন কেবল ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো এবং লিওনেল মেসি।এই গোলের মাধ্যমে রিয়ালের সাবেক তারকা রাউলকে পার হয়ে গেলেন লেওয়ানডস্কি। সর্বোচ্চ ১৩৪ গোল করলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ১১৯ নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন লিওনেল মেসি।

ম্যাচের ২৪তম মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ১৭ বছর বয়সী মিডফিল্ডার জামাল মুসিয়ালা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে কোনো ইংলিশ ফুটবলার হিসেবে সর্বকনিষ্ট গোলদাতা হয়ে গেলেন এই ফুটবলার। ৪২ মিনিটে ব্যবধান তিনগুণ করে ফেলেন লেরয় সানে।দ্বিতীয়ার্ধের পরপরই ব্যবধান চারগুণ করে ফেলেন ল্যাজিওর ফুটবলার ফ্রান্সেসকো অ্যাসারবি। আত্মঘাতি গোল করে বসেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ৪৯তম মিনিটে একটি গোল পরিশোধ করেন জোয়াকিন কোরিয়া।

ম্যাচের ৯ম মিনিটেই গোল করলেন রটার্ব লেওয়ানডস্কি। এই গোলটি দিয়েই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে ৭২তম গোল করলেন লেওয়ানডস্কি। তার সামনে রয়েছেন কেবল ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো এবং লিওনেল মেসি।

এই গোলের মাধ্যমে রিয়ালের সাবেক তারকা রাউলকে পার হয়ে গেলেন লেওয়ানডস্কি। সর্বোচ্চ ১৩৪ গোল করলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ১১৯ নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন লিওনেল মেসি।

ম্যাচের ২৪তম মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ১৭ বছর বয়সী মিডফিল্ডার জামাল মুসিয়ালা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে কোনো ইংলিশ ফুটবলার হিসেবে সর্বকনিষ্ট গোলদাতা হয়ে গেলেন এই ফুটবলার। ৪২ মিনিটে ব্যবধান তিনগুণ করে ফেলেন লেরয় সানে।দ্বিতীয়ার্ধের পরপরই ব্যবধান চারগুণ করে ফেলেন ল্যাজিওর ফুটবলার ফ্রান্সেসকো অ্যাসারবি। আত্মঘাতি গোল করে বসেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ৪৯তম মিনিটে একটি গোল পরিশোধ করেন জোয়াকিন কোরিয়া।

সময় নিউজ২৪.কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *