বড় এরশাদের পাশে খামারি সৈয়দ আমিনুল্লাহ ও কাজী জাকির হোসেন। ৪ আগষ্ট চকবাজার থেকে তোলা ছবি।---- আবু সুফিয়ান রাসেল

গরুর নাম এরশাদ

আবু সুফিয়ান রাসেল।।
ঈদুল আজহার বাকী মাত্র ক’দিন। জমে উঠতে শুরু করেছে গরু বাজার। বাজার চাঙ্গা রাখতে গরুকে অনেকে নানা নামে ডাকেন। গরুর নাম এরশাদ। তবে এরশাদ নামের তিনটি গরু থাকায়। বড়, মাঝারি ও ছোট এরশাদ তিনটি সহোদর হিসাবে পরিচয় লাভ করেছে। তিনটি এরশাদ একই খামারে পালন করা হয়েছে।

সরে জমিনে গিয়ে দেখা যায়, গতকাল বিকাল সাড়ে চারটার দিকে কুমিল্লা নগরীর চকবাজারে গরুর দাম হাঁকা হচ্ছে। নামের সাথে দৃষ্টি আর্কশনের জন্য গরুর রাখা হয়েছে বিশেষ নাম। যেমন বাঘা ৮ লক্ষ ৫০ হাজার, টাইগার ৬ লক্ষ ৫ হাজার, বড় এরশাদ ৬ লক্ষ বিশ হাজার, মেজো এরশাদ ৫ লক্ষ ৫০ হাজার এবং ছোট এরশাদ ৫ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। তবে প্রথম দিনে বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতা কম দেখা গেছে। গরু ছাগলের সংখ্যাও ছিলো অনেক কম।


আরিফ সবুজ নামের একজন ক্রেতা জানান, দাম অনেক বেশী। একাদিক বাজার দেকে কোরবানীর পশু ক্রয় করবেন।

খামারের মালিক সৈয়দ আমিনুল্লাহ জানান, তিন এরশাদকে আমরা কুষ্টিয়ার গরু বিক্রেতা মোবারক হোসেন থেকে ক্রয় করেছি ৯ মাস আগে। মোবারক ভাই গরুকে আদর করে এরশাদ নামে ডাকতেন। যতদূর জানতে পেরেছি, তিনি জাতীয় পার্টির একজন একনিষ্ট কর্মী। দলের নেতা এরশাদ সাহেব থেকে প্রাপ্ত অর্থ দিয়ে তিনি প্রথম গরুর খামার শুরু করেন। খামার করার পর তাকে আর পিছে ফিরে তাকাতে হয়নি। বাচুর থাকা আবস্থায় এগুলোকে এরশাদ নাম দিয়েছেন। যখন এরশাদ বলে ডাকে, তিনটি গরুই সাড়া দেয়। আমাদের খামারে যখন নিয়ে আসি, আমরাও দেখেছি এরশাদ বলে ডাকলে সারা পাওয়া যায়। বড় এরশাদের রাগ বেশী, মাঝারি ও ছোট এরশাদ ততটা রাগ নেই।

কাজী জাকির হোসেন নামে একজন খামারি জানান, মোট ৪০টি গরু আছে। প্রথম বাজারে ২৬টি গরু এনেছি। আশাকরি ভালো দামে বিক্রি করতে পারবো। যৌথ খামারে তিনজন পরিচালনায় রয়েছি। আগামী বুধবার আসল চমক দেখাবো।

চকবাজার গরু বাজারে ইজারাদার হাজী ওসমান গনি সাহিদ জানান, প্রায় ৫’শ গরু রাখার ব্যবস্থা আছে। ৪ আগষ্ট থেকে ঈদের দিন সকাল পর্যন্ত একটানা গরু বাজার চলবে। ক্রেতা-বিক্রেতার উভয়ের সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পুরো বাজার সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হয়েছে। পোষাক ও সাদাপোষাকে আইন শৃংখলাবাহীনির সদস্যরা আছেন। বাজার কমিটির সদস্য ও কর্মীরা ২৪ ঘন্টা সেবায় নিয়োজিত আছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *