গাইবান্ধা ধাপেরহাটে নব-মুসলিম হোটেল শ্রমিক’কে মারপিট ও চলন্ত বাসের সাথে ধাক্কা; গুরুতর আহত

সরকার লুৎফর রহমান,গাইবান্ধাঃ 
গাইবান্ধা জেলার সাদুল্যাপুর উপজেলার ধাপেরহাট বাজারে হোটেল শ্রমিক’কে নির্যাতনের খবর পাওয়া গিয়াছে। এ বিষয়ে আইনি সহায়তা চেয়ে ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র একটি অভিযোগ দায়ের করেছে আহত বিপ্লব এর শশুর। 

জানা যায়, ধাপের হাটে “আল মামুন ও টারজান হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টে” দির্ঘদিন হতে পরোটা কারিগরের কাজ করে আসছিলেন নব মুসলিম রপন সরকার বিপ্লব। শারিরিক দর্বলতায় হোটেলের কাজ করতে না আসায় ৭ জুন সকাল ৭ টায় হোটেল মালিক মান্নান মন্ডল ও ছেলে আল মামুন ডেকে নিয়ে এসে বিপ্লবকে মারপিট ও মহাসড়কে চলমান যাত্রীবাহী বাসের সাথে ধাক্কা দেয়। ফলে সে গুরুতর আহত হয়।

ঘটনা বেগতিক দেখে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কম্পেক্সে পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তী করেন হোটেল কর্তপক্ষ। প্রায় তিনদিন চিকিৎসা নেওয়ার পর আহত বিপ্লবের শশুর পলাশবাড়ী উপজেলার ছায়রুন্নেছা পলি ক্লিনিকে  ভর্তী করে চিকিৎসা প্রদান করছেন। আঘাৎ গুরুতর এবং উন্নত চিকিসার প্রয়োজন হলেও হতদরিদ্র এ নব- মুসলিম রিপন সরকার বিপ্লব এখন অসহায় হয়ে পরেছে।

একে নবমুসলিম অপর দিকে তার স্ত্রী সন্তান ভূমিষ্টের দ্বারপ্রান্তে, এই মূহুর্তে কেউ তার পাশে নেই।বিপ্লব গত ছয় বছর হলো ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে এবং তার পরিবারের সাথে কোনো প্রকার যোগাযোগ নাই। শশুর মেয়েকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন এ সময়। চিকিসার অভাবে তার বাম চোঁখ ক্ষতি হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন চিকিৎসক। এ বিষয়ে প্রচুর অর্থের প্রয়োজন হলেও হোটেল কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা গ্রহণ করছেনা বিধায় বিচারের দ্বারপ্রান্তে এ পরিবার। 

এ বিষয়ে হোটেল মালিক মান্নান মন্ডল বলেন, আমি ও আমার ছেলে বিপ্লব’কে কোনো মারপিট করিনাই। আমি নিজে হোটেলের চেরা খরি হাতে নেওয়ায় সে ভয়ে দৌড় দেয় এবং গাড়ীর সাথে ধাক্কা লেগে আহত হয়। তার ছেলে বলেন সে আহত হলে তাকে চিকিসার জন্য পীরগনঞ্জে নেই এবং পরে রমেকে চিকিৎসায় সহযোগিতা করি। পরে তার শশুর আব্দুল করিম তাকে পলাশবাড়ী ক্লিনিকে ভর্তী করেছেন বলে জানতে পারি। 

এ বিষয়ে আহত বিপ্লবের শশুর আব্দল করিম ধাপেরহাট পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ বিষয়ে তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (আইসি) নোয়াবুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ এসেছে এবং বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।

সময়নিউজ২৪.কম/ বি এম এম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *