চাঁদপুরে জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস ২০১৯ উদযাপন

কাজী মোরশেদ আলম 

চাঁদপুরে জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস ২০১৯ উদযাপন। গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তর ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীনে গ্রন্থাগারে বই পড়ি আলোকিত মানুষ গড়ি প্রতিপাদ্যে সারাদেশের ন্যায় চাঁদপুরেও জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস ২০১৯ উদযাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। গত ৫ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার বিকেলে জেলা প্রশাসন ও জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক)মোহাম্মদ শওকত ওসমান।

তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, অন্ধকার দূর করতে আলোকিত মানুষের প্রয়োজন। মানুষের চিন্তা চেতনাকে নতুন রূপ দিতে গ্রন্থাগারে এসে বই পড়তে হবে। সৃষ্টির সেরা জীব মানুষ তাদের মেধাকে বিকশিত করতে গ্রন্থাগারে এসে বই পড়ার বিকল্প নেই। তিনি আরো বলেন, জ্ঞান চর্চার জন্যে গ্রন্থাগারের বিকল্প কিছু হতে পারে না। নিজেকে আলোকিত মানুষ হিসেবে রূপ দিতে এবং জ্ঞানের বিকাশ ঘটাতে আমি সবাইকে সময় করে গ্রন্থাগারে এসে বই পড়তে আহ্বান করছি।

সভাপতির বক্তব্যে চাঁদপুর সরকারি কলেজের লাইব্রেরিয়ান তৃপ্তি সাহা বলেন, যার সৃজনশীলতার অভাব রয়েছে সে অনেক কিছুতেই বঞ্চিত। তাই বয়স অনুযায়ী সে যদি গ্রন্থাগারে এসে বিভিন্ন বই পড়ে। তাহলে তার মানবিক আচরণ ও স্বপ্নপূরণ করা দ্রুত সম্ভব হতে পারে। এজন্যে সবাইকে একটু করে হলেও বিভিন্ন মনীষীর বই পড়তে হবে। তিনি বলেন, মানুষের নিজের গুণাবলী বৃদ্ধিতেও বই অনেক উপকারী। আর নিজের মনকে বিচরণ করতে দিতেও বই পড়া দরকার। গ্রন্থাগারে এমন অনেক বই রয়েছে যা পাঠকের মনের খোরাক পূরণ করতে পারে। এ সময় তিনি সবাইকে সুন্দর বাংলাদেশ বিনির্মাণে গ্রন্থাগারে এসে বই পড়ার আমন্ত্রণ জানান।

জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারের লাইব্রেরিয়ান ইকবাল আহমেদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা গ্রন্থাগার সমিতি সভাপতি মো. নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আরিফ বিল্লাহ, মেহের ডিগ্রি কলেজে গ্রন্থাগারিক ঝর্ণা মন্ডল, গ্রন্থাগারের পাঠক খালেদ ফয়সাল প্রমুখ। এর আগে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শওকত ওসমানের নেতৃত্বে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের লাইব্রেরিয়ান, পাঠক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের নিয়ে দিবস উপলক্ষে র্যালি বের করা হয়। এটি চাঁদপুর প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণ হতে শুরু হয়ে জেলা গ্রন্থাগার কার্যালয়ে এসে শেষ হয়।

আলোচনা সভা শেষে গত বছরের ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস এবং ১৬ ডিসেম্বরের মহান বিজয় দিবসে জেলা গ্রন্থাগার আয়োজিত রচনা, বই পাঠ ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী মোট ৫৫ জন বিজয়ীর মাঝে পুরস্কার তুলে দেন অতিথিরা।

সময়নিউজ২৪.কম 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *