চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ড শিশু নুসাইবা হত্যার রায় রবিবার

আবু সুফিয়ান রাসেল:
চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ড জারিন নুসাইবা ফুলের মামলার রায় আগামী রবিবার (১৪ জুলাই)। ২০১৪ সালের ৪ জানুয়ারি নিজ বাসা থেকে নিখোঁজ হয় ৬ বছরের শিশু নুসাইবা। তার বাড়ি কুমিল্লা নগরীর নুরপুর এলাকায়। অপহরণকারী চক্রটি মোবাইলে তার নানা শামছুল হকের মোবাইল নম্বরে ৫ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। তার পরিবার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে। অপহরনের ৫দিন পর নুরপুর এলাকার একটি পুকুর থেকে বস্তা বন্ধি জারিনের ক্ষত ভিক্ষত লাশ উদ্ধার করে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ ।

এ ঘটনায় নিহত জারিনের পিতা জাহাঙ্গির আলম বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দাখিল করে। মুক্তিপণদাবির ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরের সূত্র ধরে, জাফর আহমেদ রুবেল নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। রুবেলের জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্য মতে, নিহত জারিনের চাচাতো মামা দিদারুল আলম ইমতিয়াজ কৌশলে বাসা থেকে জারিনকে আপহরণ করে রুবেলের হাতে তুলে দেয়। অপহরণের একদিন পর (৫ জানুয়ারি) হাউজিং এলাকায় অন্য একটি চিনতাইকারীদল পিটিয়ে মোবাইল ফোনসহ টাকা ছিনিয়ে নেয়। কয়েক ঘন্টা পর আশংকাজনক অবস্তায় নিহত জারিনের মামা ইমতিয়াজ ও মারা যায়। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়।

মাামা ইমতিয়াজের মোবাইলের কল লিষ্ট ও রুবেলের বর্ণনার সূত্র মতে, হত্যার অন্য আসামী আল-মাহমুদ প্রিয় নামের অন্য এক যুবককে ১ ফেবুয়ারি নুরপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়।
তিন আসামির মধ্যে চাচাতো মামা দিদারুল আলম ইমতিয়াজ নিহত , মো. জাফর আহমদ রুবেল ও আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ প্রিয় বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে আছেন।
আগামী ১৪ জুলাই বহুল আলোচিত এ মামলার রায় হবে। এ বিষয়ে নিহত শিশু জারিনের মা সালমা বলেন, দীর্ঘ ৫ বছর পর এ মামলার রায় হচ্ছে। আশা করি বিজ্ঞ আদালত আসামীদের সর্বোচ্চ শাস্তি প্রদান করবে। আমি চাই আসামিদের ফাসিঁ হোক, এর পাশাপাশি এ শিশু হত্যার যেন আপিলের সুযোগ না থাকে এ বিষটি বিবেচনার অনুরোধ করছি এবং রায়টি যেন অতি দ্রুত কার্যকর করা হয়।
সময় নিউজ২৪.কম/এএসআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *