চুয়াডাঙ্গায়  মাদরাসার শিশু ছাত্রকে বেড়ক মারপিট দু’ শিক্ষক আটক

চুয়াডাঙ্গা থেকে আকিমুল ইসলামঃ
চুয়াডাঙ্গা জীবননগর উপজেলার কাশিপুর দারুল উলুম কওমি মাদরাসার দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র নাসিমকে বেধড়ক মারপিট করার অভিযোগ উঠেছে ওই মাদরাসার দু’ শিক্ষকের বিরুদ্ধে। পুলিশ অভিযুক্ত ওই দু’ শিক্ষক মাজেদ হোসেন ও শাহিন হোসেনকে আটক করেছেন। বুধবার দুপুরে উপজেলার কাশিপুর দারুল উলুম কওমি মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটেছে। বুধবার রাতেই আহত ছাত্রের পিতা আলাউদ্দিন বাদী হয়ে এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ওই দু’ শিক্ষকের বিরুদ্ধে জীবননগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।ছাত্র নাসিম উপজেলার কেডিকে ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামের মাঝের পাড়ার আলা উদ্দিনের ছেলে।
ছাত্র নাসিম জানায়, বুধবার দুপুরে মাদরাসার শিক্ষক মাজেদ হোসেন তুচ্ছ ঘটনায় তাকে বেধড়ক মারপিট করে শ্রেণি কক্ষে আটকে রাখে। পরবর্তীতে জোহরের নামাজের সময় তাকে নামাজ পড়ার জন্য ছেড়ে দিলে সে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় শিক্ষক শাহিন হোসেন তাকে ধরে পুনরায় মারপিট করে এবং আবারো আটকে রাখে। পরে এলাকাবাসী এসে সন্ধ্যায় তাকে উদ্ধার করেন।
অভিযুক্ত দুই শিক্ষক বলেন, নাসিম মাদরাসায় প্রায়ই  অনুপস্থিত থাকে। আর যদিও মাদরাসায় আসে তবে ক্লাস না করে পালিয়ে যায়। এজন্য তাকে একটু ভয় দেখিয়েছি। হয়তো বেত্রাঘাত করার সময় হাতে বেকায়দায় লেগে গেছে। আমাদের ভুল হয়ে গেছে আর কখনো এমন ভুল হবে না।
এ ব্যাপারে জীবননগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম বলেন, আহত মাদরাসা ছাত্র নাসিমের পিতা আলাউদ্দিন বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
অভিযোগের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার ভোরে অভিযুক্ত দু’ শিক্ষককে আটক করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে অভিযুক্ত দু’ শিক্ষককে আদালতের মাধ্যমে চুয়াডাঙ্গা জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।
সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *