চুয়াডাঙ্গায় যুবকের কঙ্কাল উদ্ধারের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্তসহ দুই জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি।।
নিখোঁজ যুবকের কঙ্কাল উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশ প্রধান অভিযুক্তসহ দুই জনকে গ্রেফতার করেছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শনিবার ভোরে তাদের হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। অন্যদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রয়েছে। কঙ্কালের ময়না তদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।
আটককৃতরা হল আলমডাঙ্গা উপজেলার খাদিমপুর গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে শিপন আলী (২২) ও তার স্ত্রী ইভা খাতুন।
আলমডাঙ্গা থানার ওসি আলমগীর কবির বলেন, শুক্রবার সকালে খাদিমপুর গ্রামবাসী মাছ ধরার সময় পুকুরের কচুরিপানার নিচে কঙ্কাল দেখতে পায়। এ খবর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে শিপন ও তার স্ত্রী ইভা গাঁঢাকা দেয়।
পুলিশ রাতে প্রধান অভিযুক্ত শিপনকে আটকের জন্য অভিযান চালায় আলমডাঙ্গার বিভিন্ন স্থানে। পরে খাদিমপুর এলাকা থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে স্বামী-স্ত্রীকে আটক করে। রাতে নিহতের ভাই জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে আলমডাঙ্গা থানায় ৮ জনের নাম উল্লেখসহ কয়েক জনকে অজ্ঞাত আসামী করে একটি মামলা করেন। মামলায় শাহিন আলী ও ইভা খাতুনকে পুলিশ শনিবার ভোরে গ্রেফতার দেখান।
তিনি আরও বলেন, অন্যদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ময়না তদন্ত শেষে কঙ্কাল পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।
উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ১০ অক্টোবর নিখোঁজ হয় আলমডাঙ্গা খাদিমপুর গ্রামের আলমগীর হোসেন(২২)। নিখোঁজের ৫৬ দিন পর তার কঙ্কাল উদ্ধার হয় গ্রামের একটি পুকুর থেকে। প্যান্ট দেখে তার বাবা ও ভাই সনাক্ত করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *