তাড়াইলে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের জোর পূর্বক পুকুর খনন

আলী রেজা সুমন, কিশোরগঞ্জ:

কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নার্গিস সুলতানা জোর পূর্বক ভেকু দিয়ে উর্বর ফসলী জমি কেটে পুকুর নির্মাণ করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তাড়াইল উপজেলার রাউতি ইউনিয়নের রাউতি গ্রামে ১.২৮ একর জমি নিয়ে কিশোরগঞ্জ জেলার বিজ্ঞ যুগ্ম জেলা জজ ১ম আদালতে মোঃ নং- ৫৮/২০১৮ নং অন্য প্রকার চলাকালীন ফসলী জমিতে এই পুকুর খনন করছে।
জানা যায়, ২০১৮ সনে এ জায়গাটি নিয়ে কিশোরগঞ্জ বিজ্ঞ যুগ্ম জেলা জজ ১ম আদালতে একটি দেওয়ানী মামলা দায়ের করে ইকবাল বাহার চৌধুরী গং। মামলার সাক্ষ্য শুনানী চলমান অবস্থায় জনপ্রতিনিধি নার্গিস সুলতানা তার ক্ষমতার অপব্যবহার করে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এর অনুমতি না নিয়ে ফসলী জমির শ্রেণী পরিবর্তন না করেই বেআইনীভাবে পুকুর খনন করছে। পুকুর খননে বাধা দেয়ায় অভিযোগকারী তৌবিবুর রহমান চৌধুরীকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও হত্যার হুমকি দেন।

স্থানীয়রা জানান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নার্গিস সুলতানা এবং তার পরিবার ক্ষমতার অপব্যবহার করে এলাকায় অনেকের জায়গা দখল, টাকার বিনিময়ে ভূয়া জন্ম ও মৃত্যুসনদ দিয়ে থাকে। এছাড়াও তার ক্ষমতাবলে সমাজে অনেক অন্যায় কর্মকান্ড করে থাকে।
অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন জানায়, আমরা দেখেছি নার্গিস ভেকু দিয়ে উর্বর ফসলি জমি কেটে পুকুর খনন করাচ্ছে। জায়গাটি নিয়ে মামলা চলমান রয়েছে। তবে ফসলী জমির শ্রেণী পরিবর্তন করা হয়েছে কি না তা আমাদের জানা নেই।

অভিযোগকারী তৌবিবুর রহমান চৌধুরী বলেন, জায়গাটি নিয়ে মোকদ্দমা পরিচালনা করছি। মোকদ্দমায় সাক্ষী পর্যায়ে আছে। পুকুর খননে বাধা দিতে গেলে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নার্গিস সুলতানা আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও হত্যার হুমকি দেন। আমি এ বিষয়ে বিচার প্রার্থী। এ ব্যাপারে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নার্গিস সুলতানা জানান, এটি আমাদের পৈতৃক সম্পত্তি। আমরা জোর পূর্বক কোন কিছুই করছি না। উক্ত অভিযোগ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তারেক মাহমুদ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জমি শ্রেণী পরিবর্তন করা নিষেধ। নিয়ম বহির্ভূতভাবে শ্রেণী পরিবর্তন করা হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *