দেখে ‍নিন কেয়ামতের আলামত; বাংলাদেশের অবস্থা

অনলাইন ডেস্ক:

দুনিয়ার জীবন হল ক্ষণস্থায়ী, অচিরে কিয়ামত হবে এবং এই ক্ষণস্থায়ী দুনিয়া ধ্বংস হয়ে যাবে। ঈমান ও আমল অনুযায়ী মানুষের জন্য জান্নাত ও জাহান্নামের ফয়সালা হবে। প্রত্যেক মুসলিম কিয়ামতে বিশ্বাস রাখে। ঈমানের একটি শর্ত হল অদৃশ্যের প্রতি ঈমান আনা এবং আল্লাহ ও রাসূল (সা) থেকে বর্ণিত সকল বিষয়কে সত্য বলে বিশ্বাস করা। কুর’আনের অসংখ্য আয়াতে ও হাদিসে কেয়ামত ও কেয়ামতের নিদর্শনবলী বর্ণিত হয়েছে। এই নিদর্শনাবলী পাঠে রয়েছে বহুবীধ কল্যান। প্রথমত, হাদিসে বর্ণিত ভবিষ্যৎবাণীগুলো সত্য হতে দেখলে ঈমান দৃঢ় হয়, এবং মন আমলের প্রতি উৎসাহী হয়। দ্বিতীয়ত, ফিতনাকে চেনা সহজ হয় এবং আগত নতুন ফিতনার জন্য মানসিক প্রস্তুতি নেওয়া যায়।

কেয়ামতের আলামতগুলো দু’প্রকার। ক্ষুদ্রতম আলামত ও বৃহত্তম আলামত। ক্ষুদ্রতম আলামতের সংখ্যা অসংখ্য। এর মধ্যে কিছু আলামত ইতোমধ্যে অতিবাহিত হয়েছে, যেমন- রাসূল (সা)- এর আবির্ভাব, চন্দ্র বিদারণ, বিভিন্ন ভণ্ড নবী দাবীদারদের আগমন ইত্যাদি। আর বাকি আলামত প্রকাশ হচ্ছে এবং সময়ের সাথে সাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে।  হযরত ইবনে আব্বাস (রাযি.) বর্ণনা করেন, রাসূল (সা) বলেছেন, ‘যখন কোনো সম্প্রদায়ের পাপ বেড়ে যায়, তখনই সমাজের মসজিদগুলো সুসজ্জিত হয়। আর দাজ্জালের আবির্ভাবের সময় ঘনিয়ে না আসা পর্যন্ত মসজিদ গুলো সুসজ্জিত হবে না।’ (আসসুনানুল ওয়ারিদাতু ফিলফিতান খন্ডঃ ৪,পৃষ্ঠাঃ ৮১৯)  


১) নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের এর আগমণ ও মৃত্যু বরণ

২) চন্দ্র দ্বিখন্ডিত হওয়া

৩) বায়তুল মাকদিস (ফিলিস্তীন) বিজয়

৪) ধন-সম্পদ বৃদ্ধি পাবে

৫) কিয়ামতের পূর্বে অনেক ফিতনার আবির্ভাব হবে

৬) ভন্ড ও মিথ্যুক নবীদের আগমণ হবে

৭) হেজায অঞ্চল থেকে বিরাট একটি আগুন বের হবে

৮) আমানতের খেয়ানত হবে

৯) দ্বীনী ইল্ম উঠে যাবে এবং মূর্খতা বিস্তার লাভ করবে

১০) অন্যায়ভাবে যুলুম-নির্যাতনকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে

১১) যেনা-ব্যভিচার বৃদ্ধি পাবে

১২) সুদখোরের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে

১৩) গান বাজনা এবং গায়িকার সংখ্যা বেড়ে যাবে

১৪) মদ্যপান হালাল মনে করবে

১৫) মসজিদ নিয়ে লোকেরা গর্ব করবে

১৬) দালান-কোঠা নির্মাণে প্রতিযোগিতা করবে

১৭) দাসী তার মনিবকে প্রসব করবে ১৯) সময় দ্রুত চলে যাবে ২০) মুসলমানেরা শির্কে লিপ্ত হবে ২১) ঘন ঘন বাজার হবে ২৩) আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্ন করা হবে ২৪) লোকেরা কালো রং দিয়ে চুল-দাড়ি রাঙ্গাবে ২৫) কৃপণতা বৃদ্ধি পাবে ২৬) ব্যবসা-বাণিজ্য ছড়িয়ে পড়বে ২৭) ভূমিকম্প বৃদ্ধি পাবে ২৮) ভূমিধস ও চেহারা বিকৃতির শাস্তি দেখা দিবে ২৯) পরিচিত লোকদেরকেই সালাম দেয়া হবে

৩০) বেপর্দা নারীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে

৩১) মুমিনের স্বপ্ন সত্য হবে

৩২) সুন্নাতী আমল সম্পর্কে গাফিলতী করবে

৩৩) নতুন মাসের চাঁদ উঠার সময় বড় হয়ে উদিত হবে

৩৪) মিথ্যা কথা বলার প্রচলন বৃদ্ধি পাবে

৩৫) মিথ্যা সাক্ষ্য দেয়ার প্রচলন ঘটবে

৩৬) মহিলার সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে এবং পুরুষের সংখ্যা কমে যাবে ৩৭) হঠাৎ মৃত্যুর বরণকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে ৩৮) আরব উপদ্বীপ নদ-নদী এবং গাছপালায় পূর্ণ হয়ে যাবে ৩৯) প্রচুর বৃষ্টিপাত হবে, ফসল হবেনা ৪০) ফুরাত নদী থেকে স্বর্ণের পাহাড় বের হবে

৪১) জড় পদার্থ এবং হিংস্র পশু মানুষের সাথে কথা বলবে

৪২) ফিতনায় পতিত হয়ে মানুষ মৃত্যু কামনা করবে

৪৩) কাহতান গোত্র থেকে একজন সৎ লোক বের হবে

সময়নিউজ২৪.কম/ এ এস আর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *