নওগাঁয় চাঁদাবাজির অভিযোগে দুই নামধারী সাংবাদিক থানায় আটক

শহিদুল ইসলাম (জি এম মিঠন) নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ
নওগাঁয় হাসকিং মিলে ৬০ হাজার টাকা চাঁদাদাবী করায় স্থানীয় জনতা ২ জন কতিথ সাংবাদিককে আটক করে থানায় সোর্পদ করেছে বলে জানা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে নওগাঁ সদর উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের বলিরঘাট গ্রামে। ওই এলাকার সাহারা চাউল কল ও তিন ভাই ট্রেডার্সে কথিত দুই সাংবাদিক গতকাল বিকেলে গিয়ে ৬০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করেন, চাঁদার টাকা না দিলে ভ্র্যাম্যমান আদালত দিয়ে চালকল বন্ধ করে দিবে বলে হুমকি দেন।

এ সময় স্থানীয় জনতা ও মিল মালিকদের সন্দেহ হলে তারা ওই দুই চাঁদাবাজকে আটক করে স্থানিয় ইউপি সদস্য দুলালের মাধ্যমে নওগাঁ সদর মডেল থানায় সোর্পদ করেন। আটকৃতরা হলেন, নওগাঁ সদরের আরজী নওগাঁ এলাকার লাটাপাড়া বাজারের আবুল কালাম আজাদের ছেলে মাহাবুর ইসলাম রানা (২৮) ও শহরের হাট নওগাঁ এলাকার বীনা পানির মোড়ের মৃত অমল কুমার রায়ের ছেলে অরুপ রতন রায় (২৬)। তথ্য অনসন্ধানে জানা যায়, সম্পতি নওগাঁ জেলা সদর সহ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় সাংবাদিক পরিচয় দানকারী (কথিত নামধারী সাংবাদিকরা ) সর্বসাধারনকে সুযোগ পেলেই ব্লাকমেইল করে একের পর এক চাঁদাবাজীর ঘটনা ঘটিয়ে আসছে, এমনকি কথিত নামধারী সাংবাদিকরা হাতে ক্যামেরা ঝুলিয়ে একের পর এক চাঁদাবাজী সহ বিভিন্ন অপকর্ম করার ঘটনা ঘটানোর কারনে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের  প্রর্কৃত সাংবাদিকদের সুনাম দিনদিন ক্ষুন্ন হতে থাকে।

এরিমধ্যে কয়েক মাস পূর্বে  পত্নী তলা উপজেলায় কথিত সাংবাদিক আটক হয় এছাড়াও সম্পতি মহাদেবপুরে ও একই রকম একটি ঘটনা ঘটে।নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি সোহরাওয়ার্দী ঘটনায় সত্যতা স্বীকার করে জানান, দীর্ঘ দিন থেকে মাহাবুর ইসলাম রানা নিজেকে মানবাধিকার কর্মী ও তালাশ টিমের সদস্য বলে পরিচয় দিয়ে জেলার বিভিন্ন জায়গায় চাঁদাবাজি করে আসছিল।

ওসি আরো জানান, এ ঘটনায় সাহারা চাউল কলের মালিক হারুন অর রশিদ ফিরোজ বাদী হয়ে থানায় চাঁদাবাজির মামলা করেছেন। ২৫ মার্চ বুধবার ওই ২ জন কথিত সাংবাদিক চাঁদাবাজকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

সময়নিউজ২৪.কম/বি এম এম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *