নওগাঁয় সেনাবাহিনী টহল দেয়ায় রাস্তাঘাট ফাঁকা

শহিদুল ইসলাম (জি এম মিঠন) নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সেনাবাহিনী কঠোর হওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর নওগাঁয় বিভিন্ন হাট-বাজার গুলোতে সকাল থেকে সাধারণ মানুষদের জরুরী প্রয়োজন ছাড়া তেমন বের হতে দেখা যায়নি, তবে সংবাদ লেখার সময় সন্ধায় জেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে লোক সমাগম লক্ষ করা গেছে। তকে এসব লোকজন জরুরী প্রয়োজন তরি করকারী বা ঔষুধ কিনতেই বিকালে বের হয়েছেন বলেই অনেকেই জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টারদিকে নওগাঁ শহরের বিভিন্ন সড়কে স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় সেনাবাহিনী-পুলিশ বাহিনী টহল শুরু করেন। এসময় জনসচেতনা মূলক প্রচার-প্রচারণা শুরুর পাশাপাশি ঘরে থাকার নির্দেশ প্রদান করা শুরু হয়। এরপর থেকে নওগাঁর বিভিন্ন সড়কে থাকা ছোটছোট যানবাহন বন্ধসহ জনসাধারণের চলাচল কমে যায়। ফলে রাস্তাঘাট ফাঁকা হয়ে যায়।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস আতঙ্কে যখন নিস্তব্ধ সারাবিশ্ব তখনও নওগাঁয় রাস্তায় চলাচল করছিল বেশ কিছু যানবাহন। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এবং করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে জেলা প্রশাসন, সেনাবাহিনী ও পুলিশ টহলসহ বৃহস্পতিবার থেকে কঠোর অবস্থানে আসে।

নওগাঁ শহর সহ জেলার উপজেলা গুলোতে যান চলাচল এবং সামাজিক নিরাপত্তা বজায় রাখতে সকাল থেকেই প্রশাসনের পাশাপাশি সেনাবাহিনী টহল দিতে শুরু করে। এবং যানচলাচলে কঠোর অবস্থান নেন। অপ্রয়োজন বের হলে পড়তে হচ্ছে প্রশ্নের সম্মুখে। ফলে যান চলাচলেও নিয়ন্ত্রণ আসে। ফলে হাতে গোনা দুই একটা অটোরিকশা বা মোটরসাইকেল ছাড়া তেমন যান চলাচল লক্ষ্য করা যায়নি।

নওগাঁর জেলা প্রশাসক হারুন অর রশীদ জানান, জেলায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনগনকে আরও সচেতন করতে ২০টি মোবাইল কোর্ট, ৮টি সেনাবাহিনীর টহল টিম ও পুলিশ বাহিনীর টহল ব্যাপক জোরদার করা হয়েছে। সবার সুরক্ষা নিশ্চিত করতে এমন কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে মাইকিং করে জনগণকে বাড়িতে নিরাপদে থাকা ও অপরকে নিরাপদে রাখার পরামর্শ দিচ্ছে। এছাড়াও করোনা আতঙ্ককে কাজে লাগিয়ে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম যেন কেউ বাড়াতে না পারেন, সে বিষয়টি তাঁরা নিশ্চিত করছেন।

সময়নিউজ২৪.কম / বি এম এম 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *