নওগাঁয় ৭ শত ১০ হেক্টর জমিতে ফুলকপি চাষ

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠনঃ
নওগাঁয় ফুল কপি চাষ করে ভাল ফলন পেয়েছে কৃষক। যারা একটু আগে চাষ করতে পেরেছিল তারা আগাম কপি বিক্রি করে তাদের খরচের টাকা ইতোমধ্যে তুলে নিয়েছে। এখন যা আছে তা দিয়ে লাভের আশা করছেন তাঁরা। আগাম ওই কপি ৪০/-টাকা থেকে ৪৫/- টাকা দরে প্রতি পিচ  বিক্রি করেছেন। তবে এখন দাম প্রায় প্রকার ভেদে অর্ধেকে নেমে এসেছে। একাধিক কৃষক ও কপি ব্যাপারী জানান, স্থানীয় বাজার গুলোতে  এখন যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে। তাই ঢাকা মূখি বাজার গুলোতে এখনও ব্যাপক ভাবে কপি পাঠাতে সময় লাগবে ৭ থেকে ১০ দিন। তখন সকালে ও বিকালে শুধু নওগাঁ সদর উপজেলার ডাক্তারের মোড় হাপানিয়া বাজার এলাকা থেকে সকালে ২/৩ টি ও বিকালে ২টি ট্রাক বোঝাই করে কপি পাঠানো হবে রাজধানী ঢাকা শহরে বলেই জানিয়েছেন কপি চাষকারি কৃষকরা।
নওগাঁ কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ পরিচালক শামসুল ওয়াদুদ জানান, ফুল কপি উঁচু জমিতে চাষ হয়। ফলে এবার নওগাঁ জেলায় বন্যাতে কপি চাষের উপর কোন প্রভাব পরেনি। তাই কৃষকরা সময় মত কপি চাষ করতে পেরেছন। নওগাঁ জেলায় এবার মোট ৭’শ ১০ হেক্টর জমিতে ফুল কপি চাষ হয়েছে। প্রতি হেক্টর জমিতে ২২ থেকে ২৪ মেট্রিক টন কপি উৎপাদন হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। নওগাঁ জেলা সদর উপজেলার বর্ষইল ও পত্নীতলা, বদলগাছী, মহাদেবপুর ও মান্দা উপজেলায় কপি চাষ করে থাকেন কৃষক।
চকজাফরাবাদ গ্রামের কৃষক বাবুল সরদার (৫৬) বরিবার সকালে জানান, তিনি দেড় বিঘা জমিতে ১৫ হাজার টাকা খরচ করে কপি চাষ করেছেন। ইতোমধ্যে ১০ কাঠা জমির কপি বর্তমান বাজারে বিক্রি করেছেন প্রতি পিচ ২০/- টাকা দরে (২০০০/- টাকা শ’)। প্রায় ১৪ দিন আগে বিক্রি করেছেন প্রতি পিচ ৪০/- থেকে ৪৫/- টাকা দরে। এতে তার দের বিঘা জমির মধ্যে ১০ কাঠা জমির কপি বিক্রি করে দের বিঘা কপি চাষের খরচের ১৫ হাজার টাকা উঠিয়েছেন তিনি। বাকি ১ বিঘা জমির কপি বিক্রি করবেন এখন যে বাজার দর থাকবে সেই দরে। তাতেও তাঁর লাভ হবে আশা প্রকাশ করেছেন এ কৃষক।
আতিথা গ্রামের কপি চাষী মোঃ আসলাম হোসেন ১১ কাঠা জমিতে ১০ হাজার টাকা খরচ করে কপি চাষ করেছেন। ইতিমধ্যে বিক্রি করেছেন ৮ হাজার টাকার কপি। আরো ৮ হাজার টাকা বিক্রি হবে বলে তার আশা।
লারচি গ্রামের কপি ব্যাপারী দেলোয়ার হোসেন জানান, তিনি নওগাঁর ডাক্তারের মোড় বাজারে  ভোর সকালে বসা কপির হাট থেকে ১২ থেকে ১৪ টাকা দরে ফুল কপি কিনেন।
কপি ব্যাপারী মোঃ উজ্জল বাবু জানান, সারে ৪ ‘শ পিচ কপি ১৫ থেকে ২০ টাকা দরে প্রতি পিচ কিনেছেন। খরচ ধরে বিক্রি হবে প্রতি পিচ ফুল কপি ২৫/- টাকা থেকে ৩০/- টাকা দরে।
সময়নিউজ২৪.কম/ বি এম এম 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *