নানান আয়োজনে ভিক্টোরিয়া কলেজে কুমিল্লা হানাদার মুক্ত দিবস উদযাপিত

Hostens.com - A home for your website
মহিউদ্দিন আকাশঃ
১৯৭১ এর ডিসেম্বর মাস দেশের নানা প্রান্ত থেকে একেক করে আসতে থাকে ৭ কোটি মানুষের মুক্তির বার্তা। এ যেন বাঙ্গালী জাতির হাজার বছরের কাঙ্খিত স্বপ্নের বার্তা । একদিকে আনন্দের সংবাদ অন্যদিকে প্রিয়জন কিংবা সন্তানের যুদ্ধ থেকে ফিরে আসার অপেক্ষায় বসে থাকা অশ্রুসিক্ত মায়ের আর্তনাদ। কারো অপেক্ষার সমাপ্তি হলেও কেউ কেউ  আজও পায়নি তার প্রিয় মানুষটির সন্ধান।
গতকাল ছিলো ঐতিহাসিক ৮ডিসেম্বর কুমিল্লা হানাদার মুক্ত দিবস। দিবসটি উপলক্ষ্যে ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজে  বিজয় র্যালী ও বীরের কন্ঠে বীরগাঁথা আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সকাল সাড়ে ৯ টায়  কলেজের শিক্ষক  শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহনে বিজয় র্যালীর মাধ্যমে অনুষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু হয়।
কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর রুহুল আমিন ভূইঁয়ার সভাপতিত্বে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীরমুক্তিযুদ্ধা মফিজুর রহমান বাবুল। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ড.আবু জাফর খান, শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক প্রফেসর বিজয় কৃষ্ণ রায়, অনুষ্ঠানের আহবায়ক প্রফেসর মৃণাল কান্তি গোস্বামী, বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃৃবৃন্দ।
প্রধান অতিথীর বক্তব্যে বীরমুক্তিযুদ্ধা মফিজুর রহমান বাবুল বলেন, খুঁদিরাম, প্রতিলতা, তিতুমিরের বাশেঁর কেল্লা থেকে শুরু করে ভাষা আন্দোলন, ৬৯’র গনঅভূত্থান, ৭০ এর নির্বাচন সবই ছিলো অত্যাচারী শোষক থেকে মুক্তির আন্দোলন। যা  ১৯৭১ সালে বাঙ্গালীর অর্জনের মধ্যদিয়ে পূর্ণতা পায়। যুদ্ধচলাকালীন ৭কোটি মানুষই ছিলো মুক্তিযুদ্ধা কেউবা মুক্তিযুদ্ধাদের খাবার, বস্ত্র, পানি দিয়ে মুক্তিযুদ্ধা কেউবা সরাসরি রণাঙ্গনে যুদ্ধ করে মুক্তিযুদ্ধা।
 ১৯৭১ সালের নভেম্বরে কুমিল্লায় পাকিস্তানি হানাদারদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধাদের  চূড়ান্ত অভিযান শুরু হয়। মুক্তিযুদ্ধারা ২৮ নভেম্বর সেই অভিযানে প্রথম কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের জগন্নাথদিঘি এলাকাটি দখলে নিতে সক্ষম হন। পরবর্তীতে ৩ ডিসেম্বর মুক্তিযুদ্ধা ও মিত্রবাহিনীর যৌথ অভিযানে ময়নামতি মুক্ত করা হয়।
সভাপতির বক্তব্যে কলেজ অধ্যক্ষ প্র্রফেসর রুহুল আমিন ভূইঁয়া বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চ ও ২৫ মার্চের ভাষণ বাঙ্গালী জাতিসহ সারা পৃথিবীর মুক্তিকামী মানুষের জন্য একটি আদর্শের বার্তা। যা ইতোমধ্যে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ স্বীকৃতি লাভ করেছে। তরুণ প্রজন্ম তথা ভিক্টোরিয়া কলেজের ২৮ হাজার শিক্ষার্থীর নিকট মুক্তিযুদ্ধের বার্তা পৌছে দেয়াই হলো অনুষ্ঠানের মূল উদ্দেশ্য। এসময় তিনি মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ বুকে ধারণ করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ার আহ্বান জানান।

Hostens.com - A home for your website

সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *