ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় বার এবং বেঞ্চের মধ্যে সুসম্পর্ক থাকতে হবে- বিচারপতি ওবায়দুল হাসান

রাজিবুল হক সিদ্দিকী, কিশোরগঞ্জ:

বিচারপতি ওবায়দুল হাসান বলেছেন, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় বার এবং বেঞ্চের সুসম্পর্ক থাকতে হবে। আমাদের মনে রাখতে হবে ৩০ লাখ শহীদের আত্মত্যাগের মাধ্যমে অর্জিত স্বাধীনতার সুফল জনগণের দোর গোড়ায় পৌঁছাতে পারলেই স্বাধীনতা অর্থবহ হবে। মানুষ যাতে ন্যায় বিচার পেতে হয়রানির শিকার না হয় সে বিষয়ে বিচারক ও আইনজীবীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। তিনি গতকাল বুধবার বিকেলে জেলা আইনজীবী সমিতির শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে আইনজীবীদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে এ কথা বলেন।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. মিয়া মোঃ ফেরদৌসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সহিদুল আলম শহীদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা ও দায়রা জজ মোঃ সায়েদুর রহমান খান, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক কিরণ শংকর হালদার, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ সোলায়মান, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড. কামরুল আহসান শাহজাহান, সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. এম.এ আফজল, জিপি বিজয় শংকর রায়, পিপি শাহ আজিজুল হক, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের আহবায়ক এ্যাড. সৈয়দ শাহজাহান, সিনিয়র আইনজীবী এম.এ রশিদ, এ্যাড. ভূপেন্দ্র ভৌমিক দোলন, এ্যাড. মোজাম্মেল হক খান রতন, এ্যাড. মুহা. আব্দুর রহমান, এ্যাড. নজরুল ইসলাম নুরু, এ্যাড. সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটুসহ অন্যান্য আইনজীবী ও বিচারকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। তিনি বিভিন্ন সমস্যা প্রধান বিচারপতি ও আইনমন্ত্রীর বরাবরে সমাধান চেয়ে পত্র দিবেন।

বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ২ দিনের সফরে বাৎসরিক অধঃস্তন আদালত পরিদর্শনে কিশোরগঞ্জে আসেন।

সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *