নড়াইলের কিশোরদের মাইকিং শান্তির বার্তা প্রদান-সন্ধ্যার-পর-আর-বাইরে-থাকা যাবেনা-না: পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সন্ধ্যার পর কিশোররা। সকাল থেকে প্রতি টি থানা ও নড়াইল শহরে মাইকিং প্রচার করলেন নডাইলের পুলিশ সুপার মর্মবাণী: কিশোররা স্কুল ছাত্র, ছাত্রী ও যুবক ছেলে মেয়েরা বিশেষ কাজ ছাড়া ও কারণ ছাড়া স্কুল টাইমে বা সন্ধ্যার পরে বাইরে ঘোরাফেরা করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে অভিভাবকদের বিশেষ ভাবে পুলিশ সুপার অনুরোধ করেছে যাহাতে তাদের ছেলেমেয়ে কারণ ছাড়া বাইরে না বের হয়আসে সে দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার আওহবান নড়াইলে সন্ধ্যার পর কোনো কিশোর বাড়ির বাইরে থাকবে না।

পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার) তিনি বলেন, সন্ধ্যার পর কিশোররা বাড়ির বাইরে থাকবে না। তারা থাকবে পড়ার টেবিলে না হয় বাড়িতে। আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী যথেষ্ট সজাগ ও সতর্ক রয়েছে। অপরাধী যেই হোক, তার বয়স যাই হোক, তাদের জন্য শাস্তির ব্যবস্থা আছে। আমাদের ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট উজ্জ্বল রায় জানান, অভিভাবকদের উদ্দেশে পুলিশ সুপার (এসপি) বলেন, অভিভাবকদের আহ্বান জানাবো, আর সন্ধ্যার পর যেন কিশোররা বাড়ির বাইরে না থাকে।

আপনারা লক্ষ্য রাখুন, সবাই সচেতন থাকুন, আপনার ছেলে কি করছে, কাদের সঙ্গে মিশছে। অপরাধ করে ফেললে কেউ পার পাবে না। পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার) জানান আমরা সন্ত্রাস জঙ্গিবাদের উত্থান করেছি। একটি মহল ঘাপটি মেরে বসে থাকে, অকার্যকর করার জন্য। তারা একের পর এক ঘটনা ঘটিয়ে আমাদের বিপদের স§ুখীন করেছে। সেই জায়গা থেকে আজ আমরা ঘুরে দাঁড়িয়েছি। পুলিশ সুপার (এসপি) আরো বলেন, আমি সবসময় বলি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দক্ষতায় আমরা এর সমাধান পেয়েছি। কিন্তু শুধুই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী না। আমাদের ঘুরে দাঁড়ানোর মূলমন্ত্র চল নড়াইলের জনগণ। নড়াইলের পুলিশ বাহিনী সতর্ক আছে। ১০ বছর আগের পুলিশ আর এখনকার নড়াইলের পুলিশের মধ্যে অনেক পার্থক্য এরা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ। পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার) বলেন পুলিশের কাজে বাঁধা আসবেই। তাই বলে কাউকে থেমে থাকলে চলবে না। সকলকে সব বাঁধা-বিপত্তি অতিক্রম করে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যেতে হবে। এক্ষেত্রে কেউ যদি কোন সমস্যার সম্মুখীন হয় তবে তাকে সার্বিকভাবে সহায়তা করা হবে বলেও পুলিশ সুপার জানিয়েছেন। এছাড়াও নড়াইল পুলিশের কোন কর্মকর্তা বা কর্মচারীরা যে সমস্ত কল্যাণকর আবেদন করে থাকেন সেগুলিও খুব গুরুত্বের সাথে পর্যালোচনা করে তাৎক্ষণিকভাবে সমাধান করা হবে। মাদক, জঙ্গি ও সন্ত্রাস মুক্ত নড়াইল গড়ার প্রত্যয়ে সকলকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে পুলিশ সুপার তাঁর বক্তব্য সমাপ্ত করেন।

সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *