নড়াইলের স্কুলছাত্রের তিতাস ঘোষের ফেরিতে মৃত্যুতে ৩ কোটি টাকা ক্ষতিপরণ চেয়ে রিট

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল
: মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ি এক নম্বর ফেরিঘাটে যুগ্ন সচিবের জন্য বিলম্বের কারণে অ্যাম্বুলেন্সে কিশোরের মৃত্যুর ঘটনায় স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যুতে তিন কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট হয়েছে। নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায় জানান, মঙ্গলবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে রিটটি করেন লিগ্যাল সাপোর্ট অ্যান্ড পিপলস রাইটসের চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. জহির উদ্দিন। নড়াইলের কালিয়া পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র তিতাস মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হওয়ায় প্রথমে খুলনার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত বৃহস্পতিবার তাকে আইসিইউ-সংবলিত অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হচ্ছিল। রাত ৮টার দিকে মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ী ১নং ফেরিঘাটে পৌঁছায় অ্যাম্বুলেন্সটি। এসে ফেরি পায়নি তারা। রাত ৯টার দিক কুমিল্লা নামের একটি ফেরি শিমুলিয়া থেকে কাঁঠালবাড়ী ঘাটে পৌঁছায়। এ সময় তিতাসের স্বজনরা ঘাটে কর্মরতদের তাদের রোগীর অবস্থা জানান। তবে যুগ্ম সচিব ও এটুআই প্রকল্পের কর্মকর্তা আবদুস সবুর ম-লের গাড়ি না আসা পর্যন্ত ফেরি ছাড়তে রাজি হয়নি ঘাট কর্তৃপক্ষ। তিতাসের মৃত্যুর চার দিন পর বিষয়টি জানাজানি হলে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় ঘাট কর্তৃপক্ষের গাফিলতি আছে কি-না, তা তদন্তের জন্য নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) এবং মাদারীপুরের জেলা প্রশাসন পৃথক তিনটি কমিটি গঠন করেছে। এসব কমিটিকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *