সময় নিউজ

পলাশবাড়ীতে হত্যার উদ্দেশ্যে সাংবাদিকের উপর হামলা ভাতিজাসহ আহত ২ আটক ১

সরকার লুৎফর রহমান,গাইবান্ধাঃ গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়িতে সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির আকন্দকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা করা হয়। এ এসময় ভাতিজা সোহাগ ও ঘটনার শুরুতে বড় ভাই ফিরোজ কবির সাজেদুরকে আক্রমন করে হামলাকারি।
জানা যায়, গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার সদরের হরিণমারী গ্রামের উগ্র ও মাদকাসক্ত যুবক শফিউল আজম বিটু কর্তৃক অসতর্কতায় বাশ কাটার ফলে বিদ্যুৎ এর তার ছিড়ে নেগিটিভ পজেটিভ এক হয়ে অত্র এলাকার ইলেকট্রিক সামগ্রীর পুড়ে যায়। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বৃদ্ধি পাইলে সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির আকন্দ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হওয়ামাত্র আক্রমণকারী বিটু তার সঙ্গে রাখা নুতুন ইন্টিকাটার ব্লেড দিয়ে শাহরিয়ার কবিরের মুখে ও ভাতিজা সোহাগের পেটে পোচ দেয়। স্থানীয়রা  আহতদের রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাত ৮:৩০ মিনিটে চিকিৎসারর জন্য ভর্তি করায়। 
এ বিষয়ে ৪ জনকে আসামি করে ঐ রাত্রে সাংবাদিক শাহরিয়ারের বড়ভাই পলাশবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করে। এ বিষয়ে ওসি মাসুদুর রহমান জানান, দ্রুত হামলাকারীর একজন বিটু মিয়াকে আটক করা হয় এবং আজ তাকে গাইবান্ধা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
আহত সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির আকন্দ দৈনিক ভোরের কাগজ, সংবাদ, ভোরের দর্পণ পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি ও আলোকিত সকাল ও বিটিসি নিউজ এর জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত আছেন।  পলাশবাড়ী উপজেলা সদরের ছোট হরিণমাড়ী গ্রামের তাজল আকন্দের ছোট ছেলে। সাংবাদিক শাহরিয়ারের থুতনির নিচে ৬টি শেলাই ও ভাতিজার পেটে ১০ টি শেলাই দেওয়া হয়েছে। আহতরা পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সোহাগ আকন্দ (১৮) পেটে ১০” জখম করে হামলাকারী।
এ ঘটনায় আটক শফিউল আজম বিটু একই গ্রামের মৃত চাঁন মিয়ার ছেলে। আটককৃত বিটু বিরুদ্ধে এলাকায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে বলে জানা যায়
সময়নিউজ২৪.কম/ এ এস আর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *