পলাশবাড়ীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাচ্ছে  গৃহহীন ৬০ টি পরিবার 

সরকার লুৎফর রহমান,গাইবান্ধাঃ
মুজিববর্ষ উপলক্ষে গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে ভূমিহীন ও গৃহহীন ৬০টি পরিবারকে ঘর করে দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। উপজেলার বেশ কয়েকটি ইউনিয়নে ঘরগুলো নির্মাণ করা হয়েছে। ২৩ জানুয়ারী শনিবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপকারভোগীদের মাঝে এসব ঘর হস্তান্তর করবেন বলে জানা গেছে।
উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে অসহায় দরিদ্র যাদের জমি ও ঘর নেই তাদের জমিসহ ঘর দেয়ার প্রকল্প নেয় সরকার। এ প্রকল্পের আওতায় পলাশবাড়ী উপজেলায় সরকারীভাবে ৬০টি গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবারের মাঝে ঘর দেয়া হবে।
প্রতিটি ঘরের নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ১ লক্ষ ৭১ হাজার টাকা। প্রতিটি ঘরে দুটি শয়নকক্ষ, একটি রান্নাঘর, সংযুক্ত টয়লেট-বাথরুম ও সামনে একটি বারান্দাসহ রয়েছে। উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের উপকার ভোগী এক বৃদ্ধ জানান, আগে বিভিন্ন কর্ম করে জীবিকা নির্বাহ করলেও বয়স বেশি হওয়ায় এখন নানান রোগে আক্রান্ত হয়ে আর কর্ম করতে পারেন না। শেষ বয়সে এসে সরকার তাকে একটি বাড়ি করে দিবে জেনে সে খুশিতে আত্মহারা।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকীতে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া এত বড় একটি উপহার পেয়ে তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তিনি।
হোসেনপুর ইউনিয়নের আরেক উপকারভোগী জানান,জীবনের শেষ মুহুর্তে এসে অনেক দুঃশ্চিন্তায় ছিলাম। এই মুহুর্তে এসে সরকার আমাকে ঘর দিচ্ছে। আমার মৃত্যু হলেও আর কোনো আপসোস নেই। মরার আগে নিজের নতুন ঘরে থাকতে পারবো এটাই অনেক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামণা করেছেন তিনি।পলাশবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার   কামরুজ্জামান নয়ন জানান, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীণ থাকবে না।
এই নির্দেশনা বাস্তবায়নে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে সকল ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য আশ্রয়ন-২ প্রকল্পে গৃহ প্রদানের নীতীমালা করা হয়েছে। যারা একেবারেই গৃহহীন আছেন বিশেষ করে যারা বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা যাদের এখনই ঘর দরকার তাদেরকে আমরা বাছাই করার চেষ্টা করেছি। আমাদের ৬০টি ঘর নির্মাণের কাজ প্রায় শেষের দিকে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে তাদেরকে জমিসহ ঘরটি দিয়েছেন এমন একটি সার্টিফিকেট পাবেন তারা। জমির দলিল, নামজারির খতিয়ান, ডিসিআরসহ সার্টিফিকেট আগামী ২৩ জানুয়ারী তাদের মাঝে হস্তান্তর করা হবে। আরো ভূমিহীন গৃহহীন যারা আছেন তারা এখনো আবেদন করছেন। পরবর্তীতে যদি প্রকল্প আসে আমরা তাদেরকেও ঘর দেয়ার চেষ্টা করবো
সময় নিউজ২৪.কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *