পুকুর ও ঘের ডুবে ভেসে গেছে চিংড়িসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ—– মোংলাসহ সুন্দরবন উপকুলীয় অঞ্চলে গুমোট আবহাওয়া বিরাজ করছে, বন্দরে পণ্য ওঠানামার কাজ শুরু

মোংলা প্রতিনিধিঃ

বঙ্গোপসাগরে সৃস্ট নিম্মচাপটি গতরাতে উপকুলীয় অঞ্চল অতিক্রম করে দেশের মধ্যভাগে গিয়ে সুস্পষ্ট লঘুচাপ আকারে অবস্থান করছে। এটি আরও উত্তর ও উত্তরপূর্ব দিক অগ্রসর হয়ে দূর্বল হয়ে যেতে পারে। এদিকে নিম্মচাপটির প্রভাবে এখনও মোংলা বন্দরসহ সুন্দরবন উপকুলীয় অঞ্চলে গুমোট আবহাওয়া বিরাজ করছে। সকাল থেকে বৃস্টি না থাকলেও আকাশ ঘেঘাচ্ছন্ন রয়েছে। কখনও মেঘ আবার কখনও সূর্য় উকি দিলেও বৈরি আবহাওয়ার প্রভাব কাটেনি। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে ইলিশ আহরণ বন্ধ থাকলেও অন্যান্য সামুদ্রিক মাছ ধরার ট্রলার ও নৌকা সমুহ সাবধানে চলাচল করছে।

অপরদিকে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম শাহজাহান জানান, গত তিন দিন ধরে বৃষ্টিপাতের কারণে বন্দরে পণ্য ওঠানামার কাজ ব্যাহত হলেও আজ শনিবার সকাল থেকে এ বন্দরের অবস্থানরত বানিজ্যিক জাহাজে পণ্য খালাস-বোঝাই কার্যক্রম স্বাভাবিক হয়েছে। এ বন্দরের পশুর চ্যানেলে বর্তমানে ১০ পণ্য বাহি বানিজ্যিক জাহাজ অবস্থান করছে। তবে এসব জাহাজের মধ্যে সন্ধ্যা নাগাদ ৩টি জাহাজ বন্দর ত্যাগ এবং দুটি জাহাজ বন্দরে ভেড়ার কথা রয়েছে।

এ দিকে টানা তিন দিনের ভারি বৃস্টিপাতের কারণে এখন মোংলা পৌর এলাকা সহ আশপাশের নিম্নাঞ্চলে বৃষ্টির পানি এখন পর্যন্ত নিস্কাশন হতে পারেনি। এতে করে এলাকায় স্থায়ী জলাবদ্ধাতা দেখা দিয়েছে। পৌর সভার অনেক বাড়ি ঘরে মেঝতে পানি বিরাজ করছে। রাস্তা ঘাঁট পানিতে ডুবে রয়েছে। এ ছাড়া বৃষ্টি ও অতিরিক্ত জোয়ারের পানিতে অসংখ্য পুকুর, ঘের ও খামার ডুবে চিংড়িসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ভেসে গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন এখানকার সহস্রাধিক চিংড়ি ও মৎস্য ব্যবসায়ী।

সময় নিউজ২৪.কম/এম এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *