প্রথম ফুটবলার হিসেবে ষষ্ঠবার ব্যালন ডি’অর জিতলেন লিওনেল মেসি

প্রথম ফুটবলার হিসেবে ষষ্ঠবার ব্যালন ডি’অর জিতলেন লিওনেল মেসি

অনলাইন ডেস্কঃ

 

২০১৫ সালের পর হারানো বর্ষসেরার খেতাব আবারো নিজের করে নিলেন এই বার্সেলোনা তারকা। ২০০৯-১২ সালের মধ্যে টানা ৪ বার বর্ষসেরার খেতাব জেতা মেসি গত মৌসুমে ৫৮ ম্যাচে মোট ৫৪ গোল করেন বার্সার জার্সি গায়ে। ক্লাবকে জেতান লা লিগার শিরোপা। আর আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে করেন ১০ ম্যাচে ৫ গোল। গত মৌসুমে লা লিগায় সর্বোচ্চ ৩৬ গোল করে পিচিচি ট্রফি ও ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু জিতে নেন। নভেম্বরে ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অফ ফুটবল হিস্টোরি এন্ড স্ট্যাটিকটিসের পক্ষ থেকে বর্ষসেরা প্লেমেকারেরও পুরস্কার জেতেন ফুটবল বিশ্বের এই সেরা তারকা। আর সেপ্টেম্বরে জেতেন ফিফা বেস্ট মেন্স প্লেয়ার অ্যাওয়ার্ড।

 

প্যারিসে কাল রাতে ব্যালন ডি’অর জিতে ইতিহাসই গড়েছেন লিওনেল মেসি। প্রথম ফুটবলার হিসেবে ষষ্ঠবার ব্যালন ডি’অর জিতলেন তিনি। এত দিন সমান পাঁচবার করে পুরস্কারটি জিতেছিলেন মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। কাল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে পেছনে ফেললেন বার্সেলোনা তারকা। রোনালদো ব্যালন ডি’অর অনুষ্ঠানে ছিলেন না। লিভারপুল ও ডাচ ডিফেন্ডার ভার্জিল ফন ডাইকের পর তৃতীয় হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে রোনালদোকে।

 

২০৮-১৯ মৌসুমে দেশ ও ক্লাবের হয়ে ৫৪ গোল করেন মেসি। বার্সা জিতিয়েছেন লা লিগাও। গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগজয়ী লিভারপুলের ফন ডাইক ভোটে দ্বিতীয় হন। ভোট তালিকায় শীর্ষ সাতে রয়েছেন লিভারপুলের চার ফুটবলার। ২০১৫ সালের পর প্রথম বর্ষসেরার এ পুরস্কার জিতলেন মেসি। গতবার ব্যালন ডি’অর জয়ী লুকা মদরিচের কাছ থেকে ট্রফিটা বুঝে নেন তিনি। গত ১১ বছর ধরে লা লিগার খেলোয়াড়েরাই জিতছেন ব্যালন ডি’অর। রিয়াল মাদ্রিদ মিডফিল্ডার গতবার মদরিচ জিতে মেসি-রোনালদোর এক দশকের আধিপত্যের অবসান ঘটান।

ফ্রান্স ফুটবল’ সাময়িকীর দেওয়া বর্ষসেরার এ ট্রফি জয়ের পর মেসি বলেন, ‘এটা আমার ষষ্ঠ ব্যালন ডি’অর। সম্পূর্ণ অন্যরকম মুহূর্ত। আমার স্ত্রী বলে, কখনো স্বপ্ন দেখা থামিও না এবং কঠোর পরিশ্রম করো ও উপভোগ করো। আমি ভাগ্যবান। আরও অনেক দিন খেলে যেতে চাই। যদিও একদিন অবসর নিতেই হবে। এটা কঠিন হবে।’

 

৩২ বছর বয়সী মেসি কবে অবসর নিতে পারেন এ নিয়ে আলোচনাটা এখন উঠছে। তবে বার্সা সমর্থকদের আশ্বস্ত করলেন আর্জেন্টাইন তারকা, ‘ক্লাবের সবাই আমাকে জানে। এই ক্লাব নিয়ে আমার অনুভূতি (চুক্তিপত্র) সই কিংবা যেকোনো ভূমিকা ছাপিয়ে যায়। তাই কোনো সমস্যা নেই। অনেক আগেই বলেছি শরীরের সায় দেওয়ার ওপর সবকিছু নির্ভর করছে। তবে এখন শারীরিক ও মানসিকভাবে খুব ভালো লাগছে। আশা করি আরও অনেক দিন খেলতে পারব।’

 

জুভেন্টাস তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও লিভারপুল তারকা ভার্জিল ভ্যান ডাইককে হারিয়ে ব্যালন ডি’অর-২০১৯ জিতলেন বার্সেলোনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। সোমবার প্যারিসে এক জমকালো অনুষ্ঠানে মেসির হাতে তুলে দেয়া হয় ফরাসি সাময়িকী ‘ফ্রান্স ফুটবল’ –এর পুরস্কারটি।এরমধ্য দিয়ে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে ছাড়িয়ে রেকর্ড ষষ্ঠবারের মতো পুরস্কারটি জিতলেন আর্জেন্টাইন তারকা। এর আগ পর্যন্ত সমান পাঁচবার করে পুরস্কারটি জয়ের রেকর্ড ছিল এই দুই কিংবদন্তীর।গত মৌসুমে স্প্যানিশ লা লিগায় সর্বোচ্চ ৩৬ গোল করে মেসি জিতে নেন পিচিচি ট্রফি ও ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শু। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে করেন সর্বোচ্চ ১২ গোল। ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৫৮ ম্যাচ খেলে ৫৪ গোল করেন লিওনেল মেসি।

ব্যালন ডিঅরের সেরা ১০

১ লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা) ২ ভার্জিল ভ্যান ডাইক (লিভারপুল) ৩ ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (জুভেন্টাস) ৪ সাদিও মানে (লিভারপুল) ৫ মোহাম্মদ সালাহ (লিভারপুল) ৬ কিলিয়ান এমবাপ্পে (পিএসজি) ৭ অ্যালিসন বেকার (লিভারপুল) ৮ রবার্ট লেভনডস্কি (বায়ার্ন মিউনিখ) ৯ বার্নান্দো সিলভা (ম্যানচেস্টার সিটি) ১০ রিয়াদ মাহরেজ (ম্যানচেস্টার সিটি)।

ইয়াছিন ট্রফি

অ্যালিসন বেকার

কোপা ট্রফি

১ ম্যাথিস ডি লিট (নেদারল্যান্ডস)

২ জ্যাডন স্যানচো (ইংল্যান্ড)

৩ জোয়াও ফেলিক্স (পর্তুগাল

ব্যালন ডিঅর (নারী)

১ মেগান রেপিনো (যুক্তরাষ্ট্র) ২ লুসি ব্রোঞ্জ (ইংল্যান্ড) ৩ অ্যালেক্স মরগান (যুক্তরাষ্ট্র)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *