প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের দাবিতে মোংলায় স্মারকলিপি

 

মোংলা প্রতিনিধি:

বেতন বৈষম্য ও ১০ ও ১১ তম গ্রেড’র দাবিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে স্মারক লিপি প্রদান করেছে প্রাথমিক শিক্ষকরা। বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় কেন্দ্রিীয় কর্মসুচি অনুযায়ী মোংলা উপজেলা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে এ স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।

এসময় শিক্ষক নেতারা জানান, ১৯৭৩ সালে শিক্ষকদের দাবির মুখে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি অধ্যাদেশের মাধ্যমে ৩৭ হাজার ৬৭২টি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারীকরন ও শিক্ষকদের সরকারী চাকরীর মর্যাদা প্রদান করেন। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৩ সালে ২৬ হাজার ১৯৩টি বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করন করেন এবং বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির দাবিতে ২০১৪ সালের ৯মার্চ জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী প্রধান শিক্ষকদের ২য় শ্রেনীর মর্যাদায় ১০তম গ্রেড ও সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডে উন্নত হয় এবং শিক্ষকদের বেতন ভাতা বৃদ্ধি করা হবে বলে আশ্বস্ত করেন।

কিন্ত প্রধান শিক্ষকদের ২য় শ্রেনীর মর্যাদা ও ১০তম গ্রেড এবং সহকারী শিক্ষকদের গ্রেড বা বেতন বৃদ্ধি এখনও তার বাস্তবায়ন হয়নী। এমনকী প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের বেতন বৈসম্যও দুর করা হয়নী। তারা আরো জানায়, গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী সারা দেশে প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষকদের বেতন ও গ্রেড বৈসম্য নিরসনের আশ্বাস দেয়া হয় কিন্ত তাও এখনও বাস্তবায়ীত হয়নী।

তাই বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় কর্মসুচি অনুযায়ী এসকল প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি, বেতন বৈষম্য, প্রধান শিক্ষকদের ১০ ও সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড’র দাবিতে প্রধানমন্ত্রীকে স্মারক লিপি প্রদানের মাধ্যমে এসকল শিক্ষকদের দাবি পুরনের অনুরোধ জানানো হয়।

এসময় বাংরাদেশ শিক্ষক সমিতির মোংলা শাখার সভাপতি বিমল কৃষ্ণ চক্রবর্তী, সাধারন সম্পাদক নুর ইসলাম মোছাল্লী, সুন্দরবন সরকারী প্রাঃ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ফজলুর রহমান, উলুবুনিয়া স্কুলেন প্রধান শিক্ষক মোঃ গোলাম রসুল, দ্বিগরাজ বিএম’র প্রধান শিক্ষক পবিত্র কুমার মজুমদার, মনমতনাথ স্কুলের প্রদান শিক্ষক মোঃ ফারুক হোসেনসহ দুই শতাধিক শিক্ষক শিক্ষীকা উপস্থিত ছিলেন।

managed wordpress hosting

সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *