বালিশ কান্ডের মূল হোতার আরো তথ্য প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী নিজেই

অনলাইন ডেস্ক: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্পের কেনাকাটায় দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত প্রকৌশলী মাসুদুল আলম বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্পূরক বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে সিলেট-২ আসন থেকে নির্বাচিত গণফোরামের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খান দেশে সুশাসন নেই বলে অভিযোগ করেন। সোমবার সংসদে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমানের  এক প্রশ্নের জবাব প্রধানমন্ত্রী বলেন, পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ওই ঘটনায় যিনি দায়িত্বে ছিলেন, তার কিছু পরিচয় আমরা পেয়েছি।  তিনি এক সময় বুয়েটে ছাত্রদলের নির্বাচিত ভিপি ছিলেন। পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের দুর্নীতি প্রসঙ্গে সরকারপ্রধান বলেন, ‘বালিশতত্ত্ব নিয়ে আমারও একটা প্রশ্ন আছে। পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র সেখানে গড়ে উঠছে। সেখানে আর কিছু না পেয়ে পেলো বালিশ। এটা কোন বালিশ। কী বালিশ, সেটাও একটা প্রশ্ন? এটা কী তুলার বালিশ? কোন তুলা? কার্পাস তুলা না শিমুল তুলা; নাকি সিনথেটিক তুলা। নাকি জুটের তুলা। আর বালিশ নিয়ে রাস্তায় আন্দোলন করতে দেখলাম। এত মানুষ, এত বালিশ একদিনে কিনে ফেললো কীভাবে? এই বালিশ কেনার টাকার জোগানদারটা কে? সেটা আর বলতে চাই না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *