বুড়িচং-বি.পাড়াবাসীকে ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আ.লীগ নেতা আবদুস সালাম বেগ

স্টাফ রিপোর্টার:
কুমিল্লা-৫ (বুড়িচং-বি.পাড়া) আসনের সর্বস্থনের জনগনকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আওয়ামীলীগ নেতা আবদুস সালাম বেগ। আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে নিজ নির্বাচনী এলাকার জনগনসহ মুসলিম মিল্লাতের প্রতি তিনি শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন। বৃহস্পতিবার (৮ আগষ্ট) কুমিল্লাস্থ নিজ কার্যালয়ে তিনি এ প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এবং ঈদের দিন ও ঈদের পরবর্তী সময়ে দলের নিজ কর্মীদের করনীয় সম্পর্কে দিক নির্দেশনা মূলক বক্তব্য তুলে ধরেন। একই দিন সন্ধ্যায় নির্বাচনী এলাকা ভ্রমণ করেন। এলাকার মানুষের খোঁজ খবর দেন।

আবদুছ ছালাম বেগ

ঈদ কিংবা নববর্ষ বিভিন্ন উৎসবকে সামনে রেখে তিনি নিরবে নিভৃতে বর্তমান সরকারের ১১ বছরের দৃশ্যমান উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরে নির্বাচনী এলাকায় ৩ বছরেরও অধিক সময় ধরে এক ব্যতিক্রমী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

মো. আবদুছ ছালাম বেগ সাবেক কুমিল্লা শহর আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের কার্যকরী কমিটির অন্যতম প্রভাবশালী সদস্য হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন।

ছালাম বেগ উক্ত নির্বাচনী এলাকাব্যাপী সরকারের বিভিন্ন সফলতার দিকসহ দৃশ্যমান উন্নয়ন কর্মকান্ডের প্রচার ও রাজনৈতিক প্রচারাভিযানের অংশ হিসেবে বিশ্ব মানবতার প্রতীক, সফল রাষ্ট্রনায়ক ও দেশরত্ম জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ সরকারের দৃশ্যমান উন্নয়ন মেঘা প্রজেক্ট বাস্তবায়নসহ দেশের অগ্রগতির সফলতার বিভিন্ন দিক তুলে ধরে সড়ক দ্বীপ, চৌরাস্তা ও বিভিন্ন ব্রীজ এর এপ্রোচে ও দর্শনীয় স্থানে প্রায় ৮ শতাধিক দৃষ্টিনন্দন বিলবোর্ড স্থাপনসহ লক্ষাধিক পোস্টার লাগিয়ে জেলাসহ বুড়িচং ও বি-পাড়ার নেতাকর্মীদের কাছে ব্যাপক সমাদৃত হয়েছেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় ফরম সংগ্রহ করছেন আ.লীগ নেতা জনাব, আবদুস সালাম বেগ

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ষোলনল ইউনিয়নের সোনাইসার গ্রামের ঐতিহ্যবাহী বেগবাড়ীর এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে প্রতিভাবান, ত্যাজোদীপ্ত ও প্রতিবাদী তরুণ আ’লীগ নেতা মো. আবদুছ ছালামের জন্ম। তাঁর পিতার নাম মো. সামসুদ্দিন বেগ। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত এক পুত্র ও এক কন্যা সন্তনের জনক।

কুমিল্লায় নেতাকমীর্ সাথে নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও আওয়ামীলীগ নেতা আবদুস সালাম বেগ।

আবদুস সালাম বেগ একান্ত সাক্ষাৎকারে সময় নিউজ ২৪. কমকে বলেন,
কোরবানীর প্রকৃত শিক্ষাটা পারিবারিক ভাবেই পেয়েছি। কোরবানী হলো ত্যাগের জন্য। বাবা সামছুদ্দিন বেগ শৈশব থেকে এ শিক্ষায় প্রধান করেছেন আমাদের। বাবা যেমন প্রতিবেশীদের খবর নিতেন সে ধারা এখনও অব্যাহত আছে। এ নেতা আরো বলেন, কোরবানী শুধু গোস্ত খাওয়ার জন্য নয়। কারণ আল্লাহর নিকট রক্ত, মাংশ পৌঁছায় না। পৌঁছায় শুধু তাক্বওয়া। আমার কর্মীদেরও বলেছি, যার যার সাধ্য মতো গরিবদের প্রতি সাহায্যের হাত ভাড়িয়ে দিতে। বলেছি আমি তোমাদের সাথে আছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *