বৃষ্টিতে কেমন জুতা চাই আপনার জন্য..

 অনলাইন ডেস্ক:

কাদা-পানি এড়িয়ে স্বাচ্ছন্দ্যে ঘুরে বেড়াতে পারবেন এসব জুতা পরে। বাজার ঘুরে দেখা গেল প্রায় সব ব্র্যান্ডের জুতার দোকানেই বর্ষা উপযোগী জুতা এসেছে। এ সময় লেদার, আর্টিফিশিয়াল লেদার কিংবা কাপড়ের জুতার বদলে প্লাস্টিক, রাবার ও স্পঞ্জের জুতা টেকসই আর আরামদায়ক। এসব জুতা কাদা-পানিতে নষ্ট হয় না।

এসময় স্লিপারের পরিবর্তে একটু উঁচু স্যান্ডেল বেছে নিতে পারেন। এসব জুতার সুবিধা হলো হাঁটতে গেলে কাদা ছিটে না। আবার ময়লা কাদা লেগে নোংরা হওয়ার ভয় থাকে না।

বৃষ্টির সময় নোংরা পানিতে পা ভিজে অনেক সময় ফুসকুড়ি, চুলকানির মতো নানা চর্মরোগ হতে পারে। বিশেষ করে স্কুলগামী শিশুদের বেলায় এ সময় জুতার ক্ষেত্রে বেশি সতর্ক হওয়া উচিত। তাদের জন্যও নানা ডিজাইনের পানিরোধক জুতা পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। দিনের বেশির ভাগ সময় বাইরে বা রাস্তায় থাকতে হলে নিতে পারেন প্লাস্টিকের তৈরি পানিরোধক গামবুট। বাজার ঘুরে দেখা গেছে লাল, নীল, বাদামি, কালো, সবুজ, হলুদ ও ছাইসহ বাহারি রঙের জুতার সমাহার। নতুন ট্রেন্ড হিসেবে এসব জুতায় যুক্ত হয়েছে কার্টুন থেকে শুরু করে নানা ইমোটিকন প্রিন্টেড প্যাটার্ন। মেয়েদের জুতায় রয়েছে বিভিন্ন ফুলেল নকশা। প্লাস্টিকের ফিতায় নানা রঙের মোটিফ। তিনরঙা তিন স্তরের সোল করে ডিজাইনে আনা হয়েছে বৈচিত্র্য। মেয়েদের জন্য রয়েছে গোলাপি ও বেগুনি রঙের পাম্প শু। এসব জুতা পরে অনায়াসে হাঁটা, স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটি ও অফিসে যাতায়াত করা যাবে।

প্লাস্টিক, নরম রাবার ও সিনথেটিক লেদারে তৈরি হয়েছে বর্ষার জুতা। জুতার বেশির ভাগ অংশ খোলা থাকায় পা ভিজলেও সহজেই শুকিয়ে যায়। বেছে নিতে পারেন বেল্টযুক্ত জুতা। সামনে-পেছনে বেল্ট থাকায় পায়ে সুন্দর ফিট হয়। বৃষ্টির দিনে শু পরতে চাইলে নিন জেলি শু। প্লাস্টিকের তৈরি এই শু বর্ষার জন্যই বিশেষভাবে তৈরি। 

কোথায় পাবেন

প্রায় সব মার্কেটের জুতার দোকানে বর্ষা উপযোগী জুতা পাবেন। এপেক্স, বাটা, জিলস, বে এমপোরিয়ামসহ নানা ব্র্যান্ডের দোকানে মিলবে দেশি-বিদেশি এসব জুতা-স্যান্ডেল। একটু কম দামে কিনতে চাইলে যেতে পারেন গুলিস্তান, নিউ মাকের্ট অথবা এলিফ্যান্ট রোডের দোকানগুলোতে।

সময় নিউজ২৪.কম/এএসআর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *