মংলায় বাড়ছে নদীর পানি-বাতাসের তীব্রতাঃফনী’র প্রভাবে

মাসুদ রানা,মোংলা 
ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ফণী। মংলায় ঘূর্ণিঝড়ের আতঙ্ক থাকলেও স্বাভাবিক জীবনযাত্রা থেমে নেই। মংলা থেকে দূর পাল্লার যানবাহন চলাচল সীমিত রয়েছে। তবে মংলা তথা সুন্দরবনের নদ-নদীতে বাড়ছে পানির উচ্চতা। সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে বতাসের তীব্রতা। এতে অজানা আতঙ্ক বিরাজ করছে মংলার সাধারন মানুষের মধ্যে।
মংলা বন্দরের জেটিতে অবস্থানরত বন্দর কর্তৃপক্ষের উপ সহকারী প্রকৌশলী (নৌ) নাসির উদ্দিন দুপুর ১২টায় জানান, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে পশুর নদীর পানি প্রায় দুই ফুট বেড়েছে। সমুদ্রের ঢেউয়ের উচ্চতাও বৃদ্ধি পেয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে নদীতে।
আবহাওয়া স্বাভাবিক থাকলেও ক্ষতি এড়াতে উপকূলের মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। তবে সকাল সাড়ে ১১টা পর্যন্ত মংলার কোনো আশ্রয় কেন্দ্রে কাউকে যাওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ, উপজেলা প্রশাসন,পৌরসভার পক্ষ থেকে আলাদা আলাদা কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।
মংলায় মোট ৭৮ টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা রাখা হয়েছে।

সময়নিউজ২৪.কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *