মানুষের বেঁচে থাকার জন্য ‘শান্তি’ অন্যতম উপাদান : ঈসা

জাতীয় মানবাধিকার সমিতির চেয়ারম্যান মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা বলেন, সুন্দর ও মানবিক জীবনযাপনের জন্য ‘শান্তি’ মানুষকে সামনের দিকে অগ্রসর হওয়ার ক্ষেত্রে অদৃশ্যভাবে প্রেরণা যোগায়। মানুষের বেঁচে থাকার জন্য যেসব মৌলিক বিষয় বিশেষ গুরুত্বের দাবীদার তন্মধ্যে ‘শান্তি’ অন্যতম।রবিবার (১৯ জানুয়ারি) স্থানীয় একটি হোটেলে বিশ্ব শান্তি দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক সোসাইটি ও অগ্রগামী ফাউন্ডেশন আয়োজিত আলোচনা সভা ও গুনিজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সৃষ্টিগতভাবে মানুষ শান্তিপ্রত্যাশী হলেও, চাইলেই শান্তি মেলে না। তবে সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠায় মানবতার ধর্ম ইসলামের ভূমিকা অনস্বীকার্য। কেননা ইসলামে কোনো শ্রেণি বৈষম্য নেই। ইসলাম শ্রেণিবিভেদকে সমর্থন করে না। আর এ কারণেই ধর্ম হিসেবে একমাত্র ইসলাম মানবাধিকার, নাগরিক অধিকার, ন্যায়বিচার, আইনের শাসন, শিক্ষা ও চিকিৎসাসহ বাসস্থানের নিশ্চয়তা দিতে পেরেছে।

দৈনিক আমার সময় ও সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা নির্বাহী সম্পাদক লায়ন মু. মীযানুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক মন্ত্রী এম. নাজিমউদ্দীন আল-আজাদ। প্রধান আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সেনাপ্রধান লে. জে. (অব.) এম. হারুন-অর-রশিদ বীর প্রতীক, উদ্বোধন করেন বিরোধী দলীয় চীফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গা এমপি। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নাদিরা ইয়াসমিন জলি এমপি, অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও সমাজসেবক কর্ণেল (অব.) মোকাররম আলী খান, আলহাজ্ব ড. মোঃ আবদুর রহিম, প্রফেসর ড. সাদিয়া আহমেদ, বাংলাদেশ মানবাধিকার কল্যাণ সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান গীতিকবি সেলিনা আক্তার, এস এম সামছুল আলম নিক্সন, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, আলহাজ্ব মোঃ মোসলেম উদ্দিন ভূঁইয়া, রুখসানা আমিন সুরমা, ড. সালাহ উদ্দিন ভূঁইয়া (নয়ন), আলহাজ্ব মোঃ ফখরুল হোসেন প্রমুখ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন অগ্রগ্রামী মিডিয়া ভিশনের নির্বাহী পরিচালক গোলাম ফারুক মজনু এবং শফিকউদ্দিন অপু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *