মালদ্বীপে টিকেট পাচ্ছে না প্রবাসী বাংলাদেশীরা ,ভিডিওসহ,কালোবাজারে টিকেট বিক্রি

মোহাম্মদ মাহামুদুল,মালদ্বীপ থেকেঃ
সাফ চ্যাম্পিয়নে এক জয় ও ড্রয়ে বাংলাদেশ সাফে দারুণ অবস্থানে। পরবর্তী ম্যাচ স্বাগতিক মালদ্বীপের বিপক্ষে। এই ম্যাচের আগে বাংলাদেশের প্রবাসীরা টিকিট সংগ্রহের জন্য নানা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। বাংলাদেশি প্রবাসীদের টিকিট উন্মাদনায় ও চাহিদায় মালে স্টেডিয়াম চত্বরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন হয়েছে।৭৫ রুপিয়ার টিকেট ২০০ এবং ৩৫০ রুপি করে বিক্রি বাংলাদেশিদের কাছে,এ কেমন সিন্ডিকেট,ভিডিও তে যিনি টিকেট বিক্রি করে দেখুন তিনি একজন মালদিভিয়ান লোক বাংলাদেশি লোকের কাছে ৭৫ রুপিয়ার টিকেট ২০০ থেকে ৩৫০ রুপি করে বিক্রি করতেছে।

বাংলাদেশ মালদ্বীপ ম্যাচ দেখার জন্য অনেক প্রবাসী বাংলাদেশিরা আইল্যান্ড ও রিসোর্ট থেকে ছুটি নিয়ে মালেতে এসেছিল। এখানে এসে তারা হতাশ হচ্ছে। টিকিট পাচ্ছে না।’শ্রীলঙ্কা ও ভারত ম্যাচে বাংলাদেশের কয়েক হাজার সমর্থক খেলা দেখলেও স্বাগতিক মালদ্বীপের ম্যাচ দেখার সুযোগ পাবেন মাত্র ৩০০। যেখানে বাংলাদেশের চাহিদা কয়েক হাজার। আগের ম্যাচে মালদ্বীপ বাংলাদেশের জন্য কয়েক হাজার টিকিট বরাদ্দ করলেও এই ম্যাচে সাফের বাইলজ অনুসরণ করছে। সাফের বাইলজে রয়েছে সফরকারী দল ২০০ টিকিট কিনতে পারবে।সেই হিসাব অন্য ম্যাচে অনুসরণ না করলেও বাংলাদেশ মালদ্বীপ ম্যাচে মালদ্বীপ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন এটা করছে। সাফের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক হেলাল এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘সফরকারী দেশকে ২০০ টিকিট দিতে হবে। এরপর বাকি অংশের টিকিটের বণ্টন নীতি স্বাগতিক দেশের।’
বাংলাদেশি প্রবাসীদের অভিযোগ মালদ্বীপ মাঠে বেশি সমর্থন নিতে প্রায় ৯০ ভাগ টিকিট তারা নিচ্ছে। কেউ কেউ আবার কালোবাজারে টিকিট বেঁচা-কেনার কথা বললেন, ‘অনেক মালদ্বীপের লোক টিকিট কিনে বাংলাদেশিদের কাছে ২-৩ গুণ দামে বিক্রি করছে।’ টিকিট বিক্রির খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে বাংলাদেশের সময় সংবাদের এক সাংবাদিক ধাক্কাধাক্কির শিকার হয়েছেন।
মালদ্বীপে চলমান সাফ চেম্পিয়ানশিপ ফুটবল খেলা নিয়ে নিউজ করতে আসা সাংবাদিকদের সাথে, মালদ্বীপের মিডিয়া ম্যানেজারের দূর্বব্যবহারের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা । একইসাথে  ফিফার নিয়ম না মেনে টিকেট বিক্রি করে খেলায় জোরপূর্বক আধিপত্য বিস্তারের জন্য, মালদ্বীপ এসোসিয়েশন অফ ফুটবলের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন প্রবাসীরা।
প্রবাসীরা বলেন মালদ্বীপ সব সময় বাংলাদেশ কে অপমান করে, তারা আমাদের দেশের প্রবাসী শ্রমিকদের সাথে খারাপ আচরণ করে,মালদ্বীপের সাথে আমাদের দেশের সরকার প্রধান সহ অন্যান্য প্রধান গন কূটনৈতিকভাবে যতটা বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রাখতে আগ্রহী মালদ্বীপ কিন্তু সেইটা সম্পর্কে  ততোটা আগ্রহী না,তারা সব সময় বাংলাদেশে কে ছোট মনে করে অপমান মূলক আচরণ কর।টিকিট না পাওয়ার খবর প্রবাসীরা বাংলাদেশের মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূতকে জানিয়েছেন। তিনি বাংলাদেশের টিকিটের চাহিদার বিষয়টি মালদ্বীপের ক্রীড়া মন্ত্রী আহমেদ মাহলুফকে জানিয়েছেন। বাংলাদেশ দুতাবাস ও বাফুফে মালদ্বীপ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে আলোচনা করে এই বিষয়ে কোন ফলপ্রসূ হয়নি। মালদ্বীপ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন তাদের ফেসবুক পেজে ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশিদের জন্য যা টিকিট বরাদ্দ সেটা দেওয়া হয়েছে। আর কোনো টিকিট দেওয়া হবে না।
কালোবাজারে টিকিট বিক্রির ভিডিও  লিং
মালদ্বীপ ও বাংলাদেশের ম্যাচে সাফের বাইলজ অনুসরণ করছে। সাফের বাইলজে রয়েছে সফরকারী দল ২০০ টিকিট কিনতে পারবে।
এ প্রসঙ্গে মালদ্বীপে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ নাজমুল হাসান বলেন,’আজ সকালে প্রবাসীরা আমাকে টিকেট সংকট সম্পর্কে অবহিত করেছেন এবং  এ ব্যাপারে কিছু প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে আমি ইতোমধ্যে মালদ্বীপের যুব মন্ত্রণালয় এবং বাফুফে সভাপতি কাজী সালাহউদ্দিনের সঙ্গে কথা বলেছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *