মুরাদনগরে চার ইটভাটাকে গুঁড়িয়ে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত ২১ লক্ষ টাকা জরিমানা

সফিকুল ইসলাম,মুরাদনগর (কুমিল্লা) প্রতিনিধি:

পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়া ও ইট ভাটায় কাঠ দিয়ে ইট পোড়ানোর অভিযোগে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় চারটি ইটভাটা বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার সন্ধ্যানাগাদ ঢাকা পরিবেশ অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তামজিদ আহমেদের নেতৃত্বে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইন ২০১৩’র ধারা ১৫(১) (খ) ও ১৮ (২) মোতাবেক চার ব্রিকফিল্ডকে ২১লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, কুমিল্লা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শওকত আরা কলি ও গবেষণা কর্মকর্তা রুনায়েত আমিন রেজা।মুরাদনগর সদর ইউনিয়নের ঘোরাশাল গ্রামে অবস্থিত কামাল উদ্দিনের তাসফি ব্রিকফিল্ডকে ৫ লক্ষ ও মোস্তাক আহম্মেদেও এম.বি.সি কে ৬লক্ষ টাকা জরিমান করেন। অপর দু’টি রামচন্দ্রপুর উত্তর ইউনিয়নের তুষার ইসলামের বি.আর.এস কে ৬ লক্ষ ও মো. খলিলুর রহমানের ইসলাম ব্রিকসকে ৪লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তামজিদ আহমেদ বলেন, পরিবেশের ছাড় পত্র সহ আরো অনেক কাগজ পত্র না থাকায় চারটি ব্রিকফিল্ডকে ২১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।কুমিল্লা জেলার ইটভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ হোসেন ভ‚ইয়া বলেন, কাগজপত্র নাই এমন অনেক ব্রিকফিল্ড চলছে, যা দু:খজনক। সরকার
অনুমোদিত পরিবেশ বান্ধব জিগজাগ ব্রিকফিল্ড চালানো উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *