মে মাসে থেরেসা মে’র পদত্যাগ; কারণ কী

অনলাইন ডেস্ক: ব্রেক্সিট ইস্যুতে ব্যর্থতার দায় নিয়ে পদত্যাগ করার ঘোষণা দিয়েছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে।আজ শুক্রবার ডাউনিং স্ট্রিটে এক আবেগঘন বক্তব্যের মধ্য দিয়ে এ ঘোষণা দেন তিনি।

এ সময় মে জানান, আগামী ৭ জুন ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দলের প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন তিনি।

মে আরো জানান, নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনিই তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

ব্রেক্সিট ইস্যুতে বারবার ব্যর্থ হয়ে বেশ চাপের মুখে রয়েছেন থেরেসা মে।যুক্তরাজ্যের ইউরোপীয় ইউনিয়ন ত্যাগের ব্যাপারে তাঁর নতুন পরিকল্পনা মন্ত্রিসভায় ও পার্লামেন্টে অনুমোদিত না হওয়ার বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পরই  পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন থেরেসা মে।

মে’র প্রস্তাবিত ব্রেক্সিট খসড়া প্রস্তাব দফায় দফায় নাকচ হওয়ায় এ নিয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে চলছে অচলাবস্থা। এর ফলে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছাড়তে দেরি হয়ে যাওয়ার কারণে তার সঙ্গে আবার যোগ হয়েছে ইইউ নির্বাচনে অংশ নেয়া এবং সেখানে ব্যর্থ হওয়ার চাপ। সব মিলিয়ে সরকার ও দলের অন্যান্যদের চাপের মুখে পদত্যাগের মতো পরিস্থিতি তৈরি হলো।

শুক্রবার মে’র ভাষণের পর যুক্তরাজ্যের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য বিষয়ক সচিব লিয়াম ফক্স এক টুইটবার্তায় বলেন, টেরেসা মে পদত্যাগ করে আত্মমর্যাদাশালী ও সম্মানজনক আচরণ করেছেন। তিনি সেটাই করেছেন যেটা তার কাছে মনে হয়েছে জাতীয় স্বার্থের জন্য ভালো হবে। এটি তার রাষ্ট্রীয় জীবনের সবচেয়ে স্মরণীয় মুহূর্ত।

সময়নিউজ২৪.কম/ এ এস আর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *