মোংলায় স্কুল শিক্ষার্থী হাত-পা ও মুখ বেধে ধর্ষন, আটক-১

মোংলা প্রতিনিধিঃ

 

মোংলায় অষ্টম শ্রেনীর এক স্কুল শিক্ষার্থী ধর্ষনের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার চাঁদপাই ইউনিয়নের দক্ষিন মালগাজী গ্রামে নিজ ঘরে হাত-পা আর মুখ বেধে জোর পুর্বক ধর্ষন করে বলে ওই ছাত্রী অভিযোগ করে। ধর্ষনের এ ঘটনায় প্রসেনজিৎ দাস (৩৫) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

 

প্রতিবেশীরা জানায়, দক্ষিন মালগাজী গ্রামের গার্লস স্কুলের ৮ম শ্রেনীতে পরে এলাকার প্রকাশ মিস্ত্রীর কিশোরী মেয়ে। পিতা চট্টগ্রামের দিন মজুরের কাজ করেন। দুই মেয়ের মধ্যে বড় মেয়ে শশুরালয় চলে যাওয়ায় ওই স্কুল পড়–য়া মেয়েকে নিয়ে মা রুনুমা মিস্ত্রী নিজ বাড়ীতে বসবাস করতেন। দীঘদিন যাবত ছোট মেয়ে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে প্রায়ই কু-প্রস্তাপ দিয়ে আসছিল প্রতিবেশী প্রশেনজিৎ দাস।

 

বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই স্কুল শিক্ষার্থী বাড়িতে একা থাকায় প্রতিবেশী যুবক প্রসেনজিৎ তাদের ঘরে প্রবেশ করে এবং মেরে ফেলার ভয়ভীতি দেখিয়ে মুখ ও হাত-পা বেঁধে জোর পুর্বক তাকে ধর্ষন করে। এক পর্যায় কিশোরীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে ধর্ষক যুবক প্রসেনজিৎ পালানোর চেষ্টা করে। স্থানীয়রা ধাওয়া করে তাকে আটকে করে পুলিশে খবর দেয়। দুপুরের দিকে পুলিশ এসে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। একই সঙ্গে আলামত সংগ্রহ সহ ধর্ষিত কিশোরীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা রুনুমা মিস্ত্রী বাদী হয়ে মোংলা থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেছে।

 

এ বিষয় মোংলা থানার এস আই সেকেন্ড অফিসার জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শুক্রবার বাগেরহাট জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে। তিনি আরো জানান, ঘটনার পর পরই সহকারী পুলিশ সুপার আসিফ ইকবাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন সহ সার্বিক বিষয় খোঁজ খবর নেন এবং ধষিতার পরিবারকে মামলা সহায়তার করারও আশ্বস্ত করেন। ধর্ষনের পুরো ঘটনা অনুসন্ধানে পুলিশের তদন্ত চলছে। তবে ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হলে এ বিষয় নিশ্চিত হওয়া সম্ভব হবে বলেও তিনি জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

 

 

সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *