মোংলায় ৪ হাজার ৪৪০ বনজীবীদের পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলেন উপমন্ত্রী

মোংলা প্রতিনিধি:

মোংলার সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের আওতায় করোনা প্রবাদুর্ভাবে কর্মহীন জেলেদের মাঝে পন্য সহায়তায় দিলেন পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনারয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার।

গতকাল দুপুরে সুন্দরবনের উপর নির্ভরশীল ৪ হাজার ৪৪০ বনজীবী পরিবারকে করোনা প্রকিরোধক জরুরী পণ্য সহায়তা প্রদান করলেন তিনি। বিএমজেড এর আর্থীক ও জি আই জেড এর কারীগরি সহযোগীতায় সি এন আর এস’র বাস্তবায়নে বন অধিদপ্তরের আয়োজনের জেলে পরিবারের মাঝে এ খাদ্য সহায়তায় প্রদান করেন উপমন্ত্রী।

খুলনা বন অঞ্চলের বন সংরক্ষক মিহির কুমার দো এর সভাপতিত্বে পূর্ব বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ বেলায়েত হোসেন, পশ্চিম বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আবু নাসের মহাসিন হোসেন। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, চাদঁপাই রেঞ্জ কর্মকর্তা এনামুল হক, মোংলার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মনিরুল ইসলাম, জিআইজেড’র সিনিয়র টেকনিক্যাল এডভাইজার পঞ্চনন কুমার ডালীসহ বনবিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারীরা এসময় উপস্থিত ছিলেনৈ।

করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধক মুলক পন্যের মধ্যে ডাকনাসহ ট্যাপ,বালতী, মগ, সাবান, ডিটারজেন পাউডার, পুনঃ ব্যাবহার যোগ্য মাক্স,স্যানিটাররী ন্যাপকিন ও করোনা সচেতনতা মুলক লিফলেট দেয়া হয়। পর্যাক্রমে এ রেঞ্জে ৪ হাজার ৪৪০টি পরিবারের মধ্যে এ পন্য সামগ্রী প্রদান করা হবে বলে জানায় বন বিভাগ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার বলেন, সরকার প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে সহায়তা করেছেন। ধাপে ধাপে খাদ্য পণ্য সহায়তা অব্যাহত রয়েছে।যেকোন দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারের পক্ষ থেকে সকল কিছু প্রস্তুতি রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, সুন্দরবন হচ্ছে আমাদের অক্সিজেন। এমন কিছু করা যাবেনা যাতে, আমাদের অক্সিজেন ব্যাংক আমরাই ক্ষতি করি এবং আমাদের দ্বারা সুন্দরবনের ক্ষতি হয়।সুন্দরবন বাচঁলে আমরা বাচঁবো, দেশের মানুষ বাচঁবে।

 

অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করেন করমজল বন্য প্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাওলাদার আজাদ কবির। অনুষ্ঠানে উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার’র হাতে প্রথমে ২০ জন বনজীবী পরিবারের মাঝে সামগ্রী প্রদান করলেও চাঁদপাই এলাকার ৩৭ টি গ্রামের ৪ হাজার ৪৪০ টি পরিবারকে পর্যাক্রমে সহায়তা প্রদান করা হবে বলে জানায় চাদপাই রেঞ্চ কর্মকর্তা মোঃ এনামুল হক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *