মোংলা পশুর চ্যানেলে কয়লা বোঝাই কার্গো জাহাজ ডুবি—–পন্যসহ কয়েক কোটি টাকার ক্ষতি, থানায় জিডি

মোংলা প্রতিনিধিঃ

মোংলা সমুদ্র বন্দরের পশুর চ্যানেলের মোংলা মোহনা সংলগ্ন এলাকায় কয়লাবোঝাই এম,ভি বিবি ১১৪৮ নামের কার্গো জাহাজ ডুবির ঘটনায় থানায় সাধারন ডায়রী করেছে মাষ্টার মোঃ ওসমান। রোববার দুপুরের পর জাহাজ ডুবির ঘটনার বিবাবরনে ৭৫০ মেঃটন কয়লা ও অন্যান্য মালামালের ক্ষয়ক্ষতি কথা উল্লেখ করেন তিনি। দুর্ঘটনার ২০ ঘন্টা পরে উদ্ধার কাজ শুরু না হলেও দুর্ঘটনাকবলীত স্থান নির্ধারন করেছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। তবে কার্গো জাহাজ দ্রুত উদ্ধার ও বানিজ্যিক জাহাজ চলাচলের জন্য পশুর চ্যানেল নিরাপদ রাখতে তাগিদ দিয়েছে বন্দরের হারবার বিভাগ।

ডুবন্ত কার্গো জাহাজের মাষ্টার মোঃ ওসমান বলেন,কয়লা নেয়ার জন্য ২৭ ফেব্রয়ারী রাত সাড়ে ৮টায় কার্গো জাহাজ এম,ভি বিবি-১১৪৮ মোংলা সমুদ্র বন্দরের হাড়বাড়িয়ার ৭নম্বর এ্যাংকোরেজ বয়ায় থাকা বিদেশী বানিজ্যিক জাহাজ এম,ভি জসকো হংজাহু’র সাথে নঙ্গর করি। সেখান থেকে প্রায় ৭শ ৫০ মেঃ টন কয়লা বোঝাই করি ওই কার্গো জাহাজে। শনিবার রাতে বোঝাই সম্পুর্ন হলে কার্গো জাহাজটি ওই বিদেশী জাহাজ থেকে যশোরের নওয়াপাড়ার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসি। এরই পথিমধ্যে রাত সাড়ে ১১টার দিকে মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলের বানীশান্তা বাজারের কানাইনগর এলাকায় পৌঁছালে হঠাৎ নদীতে কুয়াশায় কিছু না দেখতে পেরে দিগ হারিয়ে ফেলে মাষ্টার। এছাড়াও নদীতে প্রচন্ড ¯্রােত থাকায় কোথাও কিছু না দেখতে পেরে ওই খানেই নঙ্গর করার চেষ্টা করে জাহাজে থাকা নাবিকরা। এসময় পিছন থেকে ঘুরানোর চেষ্টাকালে দ্রুত কিনারে নেয়ার জন্য চালাতে থাকে মাষ্টার। এসময় কিছু দুর গেলেই ডুবো চরে আটকে তলা ফেটে জাহাজটি ডুবে যায়। ওই জাহাজের মাষ্টারসহ ১১জন নাবিক ও একজন নিরাপত্তা কর্মী ডাকচিৎকার দিলে অন্য কার্গো জাহাজে থাকা নাবিকদের সহায়তায় অক্ষত অবস্থায় সাঁতরিয়ে কিনারে উঠে যায়।

এক হাজার মেট্রিক টন ধারন ক্ষমতা সম্পন্ন কার্গো জাহাজটিতে বোঝাই করা ৭শ ৫০ মেঃটন কয়লা ছিল, এ পন্যের অনুমানিক মুল্য ৬০ লক্ষ টাকা। তবে কার্গো জাহাজসহ কয়েক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলেও জানায় জাহাজ মাষ্টার মোঃ ওসমান।তবে ওই কার্গো জাহাজে থাকা ১২ নাবিক সম্পুর্ণ সুস্থ আছেন বরেও জানায় মাষ্টার ওসমান। এদিকে রোববার দুপুরে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষে প্রতিনিধিরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে লাইটার জাহাজটি এখনো উদ্ধার কাজ শুরু করতে পারেনি পন্য পরিবহন কর্তৃপক্ষ।অন্যদিকে জাহাজটি উদ্ধার কাজ শুরু না হলেও দুর্ঘটনাস্থলে মার্কিংয়ের কাজ শুরু করার কথা জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার বিভাগ।

মোংলা বন্দরের হারবার মাস্টার কমান্ডার শেখ ফকর উদ্দিন বলেন, মোংলা বন্দরের হারবাড়িয়া এলাকায় বানিজ্যিক জাহাজ থেকে ইস্টার্ণ প্রাইভেট লিমিটেডের আমদানি করা কয়লা এমভি বিবি-১১৪৮ নামে একটি কার্গো জাহাজ পরিবহন করছিল। শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে পশুর নদী হয়ে কয়লা নিয়ে খুলনার নওয়াপাড়ার দিকে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এসময় মাষ্টার দ্রুত কিনারে নেয়ার পথে চরে আটকে তলা ফেটে কাত হয়ে ডুবে যায়। কার্গো জাহাজটিতে ১২ জন নাবিক ছিলেন। তাঁরা সবাই নিরাপদে রয়েছেন। কার্গো জাহাজটি পশুর নদীর ভাটির সময় দেখা যাচ্ছে। জোয়ার এলে সম্পুর্ণ ডুবে যাচ্ছে। আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ডুবন্ত কার্গো জাহাজটিকে দ্রুত উদ্ধারের জন্য আমদানী কারক ও কার্গো জাহাজ সাটার মালিককে তাগিদ দেয়া হয়েছে। তবে ডুবন্ত কার্গোটি পশুর চ্যানেলের বাহিরে রয়েছে তাই বানিজ্যিক জাহাজ চলাচলে কোন সমস্যা হচ্ছে না বলে জানায় বন্দরের হারবার মাষ্টার।

সময় নিউজ২৪.কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *