যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে সহসা চালু হচ্ছে না আইসিইউ ওয়ার্ড 

নিলয় ধর,যশোর প্রতিনিধি :
করোনায় আক্রান্তদের যথাযথ চিকিৎসা দেওয়ার জন্যে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল কোভিড-১৯ ইউনিট চালু করা হলেও চালু হয়নি আইসিইউ ওয়ার্ড। প্রয়োজনীয় সামগ্রি ও দক্ষ জনবলের অভাবে এই ওয়ার্ডের কার্যক্রম শুরু করা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন, হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক। যশোরে করোনার প্রকোপ ও মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পেলে শহরের এক প্রান্তে স্থাপন করা হয়েছে কোভিড-১৯ হাসপাতাল। সেখানে পর্যাপ্ত চিকিৎসা সুবিধা না থাকায় মুমূর্ষু করোনা রোগীদের যথাযথ চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে আইসিইউ ওয়ার্ড ও করোনা ওয়ার্ড চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে ৬টি ভেন্টিলেটরও সরবরাহ করা হয় আইসিইউ ওয়ার্ডের জন্য। গত ৭ সেপ্টেম্বর থেকে কোভিড-১৯ ওয়ার্ডের কার্যক্রম শুরু হলেও চালু হয়নি আইসিইউ ওয়ার্ড। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সেবা বিভাগ থেকে সরবরাহ করা ৬টি ভেন্টিলেটরও এখনও স্থাপন করা হয়নি।
কবে নাগাদ চালু হবে তা সঠিকভাবে বলতে পারেন না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা.দিলীপ কুমার রায় আইসিইউ চালু করার ব্যাপারে নানা প্রতিবন্ধকতার কথা তুলে ধরেছেন। তিনি বলেছেন, বরাদ্দকৃত ১০টি ভেন্টিলেটরের ভেতর ৬টি ভেন্টিলেটর এসেছে। এর সাথে আনুষাঙ্গিক যে উপকরণ ও জনবল দরকার তা পাইনি। আইসিইউ চালুর বিষয়ে এই অর্থ বছরে টেন্ডার হবে। টেন্ডারের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় উপকরণ ক্রয় করা হবে। ইউনিসেফ এই কাজ পেয়েছে। তারা প্রয়োজনীয় চাহিদা দেবে। সে মোতাবেক প্রয়োজনীয় মালামাল ক্রয় করা হবে। তাতে অনেক সময় লেগে যাবে। হাসপাতাল সূত্র জানা যায়, আইসিইউ চালু করতে হলে ভেন্টিলেটরের সাথে অক্সিজেনের সংযোগ লাইন, কার্ডিয়াক মনিটর, পালস, অক্সিমিটার, অপারেটর, টেকনিশিয়ান, প্রশিক্ষিত নার্স ও দক্ষ জনবলের প্রয়োজন হয়। সেই সাথে প্রয়োজন হয় উন্নতমানের বেড। কিন্তু ভেন্টিলেটর আছে, নেই অন্যান্য সুবিধা। ফলে দ্রুত হাসপাতালের আইসিইউ চালু করার কোন সম্ভাবনা নেই। এই দিকে, এটা চালু না হওয়ার কারণে যশোরে করোনায় আক্রান্তরা বিশেষ সুবিধা পাচ্ছেন না। অন্যান্য রোগীরাও বঞ্চিত হচ্ছে আইসিইউ সুবিধা থেকে।
সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *