রমজানে ইনসুলিন ব্যবহার করা যাবে কী না?

যদি রোজার জন্য আপনি উপযুক্ত হয়ে থাকেন, অবশ্যই আপনার ডাক্তার ডায়াবেটিসের ওষুধ বা ইনসুলিনের মাত্রা পরিবর্তন করে দেবেন এবং আপনি তা মেনে চলবেন।

সাধারণ উপদেশ

মুখে খাবার ওষুধ  
    রমজানের প্রথম ও শেষ দিন ওষুধকে বিশেষ করে সমন্বয় করে নিতে হবে।
    যারা দিনে একবার ডায়াবেটিসের ওষুধ খান (যেমনÑ সালফোনাইলইউরিয়া দিনে একবার), তারা ইফতারির শুরুতে ওই ওষুধ একটু কম করে খেতে পারেন।
    যারা দিনে একাধিকবার ডায়াবেটিসের ওষুধ খান (যেমনÑ সালফোনাইলইউরিয়া দিনে দুইবার), তারা সকালের মাত্রাটি ইফতারের শুরুতে এবং রাতের মাত্রাটি অর্ধেক পরিমাণে সাহরির আধাঘণ্টা আগে খেতে পারেন।
    যারা মেটফরমিন ৫০০ থেকে ৮৫০ মিলিগ্রাম দিনে তিনবার গ্রহণ করেন, তারা ইফতারের পর মেটফরমিন ১ হাজার মিলিগ্রাম এবং সাহরির পর ভরা পেটে ৫০০ থেকে ৮৫০ মিলিগ্রাম খেতে পারেন।
    যারা রিপাগ্লিনাইড অথবা নেটিগ্লিনাইড গ্রহণ করেন, তারা ইফতারের শুরুতে ও সাহরির আগে অথবা সন্ধ্যা রাতে খাবারের আগে খেতে পারেন।

ইনসুলিন
    যারা তিনবার ইনসুলিন গ্রহণ করেন, ইফতারের সময় সকালের পুরো ডোজ নেবেন; সন্ধ্যারাতে দুপুরের পুরো ডোজ নেবেন এবং সাহরির সময় রাতের অর্ধেক ডোজ নেবেন।
    যারা তিনবার (ঝযড়ৎঃ অপঃরহম) ইনসুলিন এবং রাতে (ঘচঐ) গ্রহণ করেন, ইফতারের সময় সকালের পুরো ডোজ নেবেন; সন্ধ্যা রাতে দুপুরের পুরো ডোজ নেবেন এবং সাহরির সময় রাতের অর্ধেক ডোজ নেবেন।
    যারা দুইবার ইনসুলিন গ্রহণ করেন, ইফতারের সময় সকালের পুরো ডোজ নেবেন এবং সাহরির সময় রাতের অর্ধেক ডোজ নেবেন।
    যারা একবার ইনসুলিন গ্রহণ করেন, তারা ইফতারের সময় নেবেন।
পরিশেষে জেনে রাখা ভালো, (বিভিন্ন আলেম-ওলামার মতামত) রোজার সময় রক্ত পরীক্ষা এবং প্রয়োজনে ইনসুলিন নিলেও রোজা ভাঙবে না। তবে সাহরির ২ ঘণ্টা পর, দুপুর ১২টা থেকে বিকাল ৩টা, ইফতারের আগে এবং ইফতারের ২ ঘণ্টা পর রক্ত পরীক্ষা করা উচিত।
সময়নিউজ২৪.কম/ এ এস আর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *