শিশুকে অপহরন করে মুক্তিপন আদায়ের চেষ্টা বার্থ করে দিলেন ওসি, অপহরনকারী আটক

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠনঃ
মাত্র ৪ বছর বয়সী শিশু আরমানকে অপহরন করে তার পরিবারের কাছে থেকে সারে ৪ লাখ টাকা মুক্তিপন চান অপহরনকারী। এঘটনায় শিশু সন্তান আরমানের মা শিশুকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন।
অপরদিকে শিশু আরমানের অপহরনকারী ফোনে যোগাযোগ করে মুক্তিপনের টাকা নেওয়ার জন্য মড়িয়া হয়ে উঠেন। কিন্তু থানাতে সদ্য যোগদানকৃত ওসি আঃ হাই সাহেব এর কৌশলী অভিযানে আটক হোন সেই শিশু অপহরনকারী, একই সাথে শিশু আরমানকেও উদ্ধার করে তুলে দেন মায়ের কোলে। এশিশুটিকে অপহরন এর ঘটনাটি ঘটেছে কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলায়।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে, মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আঃ হাই প্রতিবেদককে জানান, শিশু আরমান (৪) কে অপহরন করে তার পরিবারের কাছে সারে ৪ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি করেন অপহরনকারী। আর শিশু সন্তানকে হারিয়ে তার মা বাকরুদ্ধ ( অসুস্থ) হয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে শিশু আরমান এর পিতা নিরুপায় হয়ে মহেশখালী থানাতে এসে সম্পূর্ন ঘটনাটি খুলে বলেন। শিশুটির পিতার বর্নণা শুলে প্রথমে একটি অপহরন মামলা নেওয়া হয়। এরপরই কৌশলগত কারনে অপহরনকারীর দেওয়া বিকাশ নংএ বিকাশ করে টাকা পাঠানো হয় এবং তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে যে নং টাকা পাঠানো হয়েছিলো সেটি সনাক্তকরন করেই আজ ২৯ শে সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার রাত
আড়াইটারদিকে রামু উপজেলায় অভিযান চালিয়ে রফিক নামের একজন অপহরনকারী কে আটক পূর্বক তার হেফাজতে থাকা শিশু আরমান কে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরে দেওয়া হয়। শিশু আরমানকে ফিরে পেয়ে তার মা ও বাবা আবেগে আপ্লূত হয়ে পড়েন। উল্লেখ্য- ওসি আঃ হাই নওগাঁ জেলা সদর মডেল থানা ও পরে নওগাঁর সাপাহার থানায় অফিসার ইনচার্জ ( ওসি) হিসাবে কর্মরত ছিলেন। কর্মরত থাকাকালে ওনার সততা ও আন্তরিকতা সহ ভালো ব্যবহারে ঐ দুই থানা সহ নওগাঁ জেলা বাসীর কাছে তিনি সৎ বা ভালো কর্মকর্তা হিসাবে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেন। সম্পতি তিনি সাপাহার থানা থেকে বদলী হয়ে গত ২৬ শে সেপ্টেম্বর মহেশখালী থানাতে যোগদান করেন।
সময় নিউজ২৪.কম/এমএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *