সরিষাবাড়ীতে সতন্ত্র মেয়রপ্রার্থী হামলার শিকার

লিয়াকত হোসাইন লায়ন,জামালপুর প্রতিনিধি।।
জামালপুরের সরিষাবাড়ী পৌরসভার সাবেক মেয়র (ভারপ্রাপ্ত) ও আসন্ন পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ফজলুল হক খান হামলার শিকার হয়েছেন।
সোমবার (২৫ জানুয়ারি) সকাল ১১টার দিকে পৌরসভার কামরাবাদ ঝিনাই ফিলিং স্টেশন এলাকায় মারাত্মক ভাবে মাথায় হামলার  ঘটনা ঘটে।
প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় মেয়র প্রার্থী ফজলুল হক খান জানান, সকাল ১১টার দিকে তিনি একটি জানাযা নামাজে অংশ গ্রহন করতে যান।
এসময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই  আমার পিছন থেকে মাথায় অতর্কিত হামলা চালায়।
 আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক প্রার্থী মনির উদ্দীন এর ভাতিজা উপজেলা ছাত্রলীর সহসভাপতি নিবর ও ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় লোকজন এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।
তিনি  জানান আমি কোন নিবার্চনী প্রচারনা করতে যায়নি,বরং একটি মানুষ মৃত্যুরবণ করেছে, তার জানাযায়  কেমন মাত্র শরীক হতে গিয়েছি।একজন মুসলমান হিবেসে দায়বদ্ধতা থেকে এই কাজটুকু করেছি। বর্তমানে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফজলুল হক খান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।
এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী মনির উদ্দিন বলেন, আমি এই হামলার বিষয়ে কিছুই জানি না। আর এই হামলার সাথে আমার কোন দলীয় লোক জড়িত নয়। এছাড়া আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্যই এই হামলার ঘটনাটি ঘটানো হয়েছে।
এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু মো. ফজলুল করীম বলেন, স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীকে মারধরের খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ফজলুল হক খানের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্ততি চলছে। হামলার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।
উল্লেখ্য, আসন্ন  ৩০ জানুয়ারি সরিষাবাড়ী পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নির্বাচনে তিনজন মেয়র প্রার্থী ভোট যুদ্ধে লড়বেন। আওয়ামীলীগ মনোনিত উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি মনির উদ্দিন নৌকা, বিএনপি মনোনিত উপজেলাপ্রার্থী যুবদলের আহ্বায়ক ও সাবেক মেয়র এ কে এম ফয়জুল কবীর তালুকদার শাহীন ধানের শীষ এবং বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী পৌর বিএনপির সহসভাপতি ও সাবেক মেয়র ভারপ্রাপ্ত ফজলুল হক খান (নারিকেল গাছ প্রতিকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
সময় নিউজ২৪.কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *