সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে আইনজীবীদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে হবে – রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ

 

রাজিবুল হক সিদ্দিকী, কিশোরগঞ্জ:

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে আইনজীবীদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে হবে।ইদানিং আইনজীবীগণ বিচারপ্রার্থী জনগণের আস্থা হারাচ্ছে এতে করে তাদের সাথে দূরত্ব বাড়ছে। পেশাগত দায়িত্বের পাশাপাশি সামাজিক দায়িত্ববোধ থেকে আইনজীবীগণকে এগিয়ে আসতে হবে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, আইনজীবী অথবা তার পরিবারের লোকজন কারও বিরুদ্ধে মামলা করলে প্রতিপক্ষ পক্ষে কোন আইনজীবী আইনী সহায়তা দিবেন না এটি চরম মানবাধিকার লংঘন। রাষ্ট্রের সকল নাগরিকই ন্যায় বিচার ও আইনের সহায়তা লাভের অধিকারী। ফলে এ বিষয়টি বিবেচনায় আনতে হবে।তিনি আরও বলেন ৮ম জাতীয় সংসদের যখন স্পীকার ছিলাম তখন সংসদে ৩০০ সংসদ সদস্যের মধ্যে মাত্র ৩৩ জন আইনজীবী ছিলেন। এর মধ্যেও ১০/১২ জন শুধু আইনপেশায় নিয়োজিত ছিলেন। অথচ আমি যখন ১৯৭০- এ পার্লামেন্ট মেম্বার ছিলাম তখন আইনজীবী ছিল ৫১ ভাগ। এখন স্থানীয় পরিষদেও আইনজীবীর সংখ্যা কমে গেছে।

কিশোরগঞ্জে ১৩টি উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে একজনও আইনজীবী নেই।৮টি পৌরসভার মধ্যে শুধুমাত্র ভৈরব পৌরসভার মেয়র আইনজীবী। এমন একটি সময় আসবে যখন আইনজীবীদের ভাড়া করে নিয়ে সংসদে প্রণীত আইন লিখানো হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার কিশোরগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির ১০তলা ভবনের শিলান্যাস উপলক্ষে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. মিয়া মোঃ ফেরদৌসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন কিশোরগঞ্জ- ২ (কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া) আসনের সদস্য সদস্য নূর মোহাম্মদ, জেলা ও দায়রা জজ মোঃ সায়েদুর রহমান খান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জিল্লুর রহমান, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক সহিদুল আলম শহীদ, সহ-সভাপতি এ্যাড. মনসুর আলম প্রমুখ।

এ সময় জেলা প্রশাসক মোঃ সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোঃ মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার), জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. এম.এ আফজল, সরকারী কৌশলী বিজয় শংকর রায়, পিপি শাহ আজিজুল হকসহ বারের আইনজীবীগণ উপস্থিত ছিলেন।

তিনি আরও বলেন, দুর্নীতি এবং গ্যাং কালচার শুরু হয়েছে। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি জনগণকেও এগিয়ে আসতে হবে। তিনি দুঃখ করে বলেন, কিশোরগঞ্জের মাঝ দিয়ে প্রবাহমান নরসুন্দা নদী জবরদখলের মাধ্যমে ক্রমশ বিলীন হয়ে যাচ্ছে। কোথাও আগুন লাগলে পানি সংকটে পড়তে হবে। তাছাড়াও সরকারি ও পারিবারিক পুকুর ভরাট হয়ে যাচ্ছে। অথচ দেশে জলাধার সংরক্ষণ আইন আছে। এ বিষয়ে আইনজীবী স্বপ্রনোদিত হয়ে জনস্বার্থে মামলা করতে হবে।

সময়নিউজ২৪.কম/ বি এম এম 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *