সেমির টিকিট নিশ্চিত রিয়ালের

অনলাইন ডেস্কঃ

অ্যানফিল্ডে আসার সময় রিয়াল মাদ্রিদের বাসে আক্রমণ করে বসেছিল লিভারপুল সমর্থকগোষ্ঠীর একটি অংশ। এতে জানালার কাচও ভেঙে যায়। বাইরের এই পরিস্থিতি মাঠের খেলাতে করিম বেনজেমা-টনি ক্রুসদের মনোবলে এতটুকু চিড় ধরাতে পারেনি। সমর্থকরা বাসের জানালা ভাঙলেও মাঠে লিভারপুল ভাঙতে পারেনি রিয়ালের রক্ষণ। তাই চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে পৌঁছে গেছে লস ব্লাঙ্কোসরা।

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত হয়েছে স্প্যানিশ জায়ান্ট ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের। বুধবার রাতে কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় লেগে গোলশূন্য ড্র করেই টুর্নামেন্টের সেরা চারে পৌঁছে গেছে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা।

মূলত প্রথম লেগে ৩-১ গোলে জেতার পরই প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেছিল রিয়ালের সেমির টিকিট। তবু দ্বিতীয় লেগটি লিভারপুলের ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ডে হবে বিধায়, খানিক আশা ছিল অলরেডদের।

কিন্তু নিজেদের ঘরের মাঠে কিছুই করতে পারেনি ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা। প্রথম লেগে রিয়ালের মাঠে গিয়ে এক গোল করলেও, দ্বিতীয় লেগে জালের ঠিকানা খুঁজে নিতে পারেননি মোহামেদ সালাহ, সাদিও মানেরা।

পুরো ম্যাচজুড়েই ছিল লিভারপুলের আক্রমণাত্মক ফুটবলের দাপট। একইসঙ্গে ছিল তাদের আক্রমণভাগের ফিনিশিং ব্যর্থতা। সারা ম্যাচে অন্তত ১৫টি শট করে তারা, যার মধ্যে মাত্র ৪টি ছিল লক্ষ্য বরাবর। কিন্তু সবগুলোই দারুণ দক্ষতায় ফেরান রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কর্তোয়া।

অন্যদিকে দুই গোলের লিড থাকা রিয়াল মাদ্রিদ শুরু থেকেই রক্ষণাত্মক পরিকল্পনা সাজিয়ে এগুতে থাকে। তাদের দৃঢ় রক্ষণ ভেদ করা সম্ভব হয়নি লিভারপুলের পক্ষে। তবে আচমকা কিছু সুযোগ তৈরি করে রিয়ালও। কিন্তু সেগুলোয় গোল আর হয়নি।

ফলে ড্র হয় দ্বিতীয় লেগের ম্যাচটি। প্রথম লেগে পাওয়া ৩-১ গোলের জয়ের সুবাদেই সেমিতে উঠে গেছে রিয়াল। সেরা চারের লড়াইয়ে তাদের প্রতিপক্ষ পোর্তোকে হারিয়ে সেমিতে ওঠা চেলসি।

দিনের অন্য ম্যাচে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের মাঠ থেকে ২-১ গোলে জিতে ফিরেছে ম্যানচেস্টার সিটি। ফলে দুই লেগ মিলে ৪-২ গোলের অগ্রগামিতায় সেমির টিকিট পেয়েছে তারা। সেরা চারে ম্যান সিটির প্রতিপক্ষ বায়ার্ন মিউনিখকে বিদায় করা প্যারিস সেইন্ট জার্মেই।

সময় নিউজ২৪.কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *